গসিপবিনোদনসিনেমা

বন্ধু অমিতাভকে ‘স্যারজি’ না বলার অপরাধ! মাশুল দিতে সিনেমা থেকে বাদ পড়েছিলেন কাদের খান

‘সিনেমা আমার বাড়ি, ডায়লগ আমার পেশা, যখন মন করবে চলে আসবেন কাদের খান (Kader Khan) আমার নাম। ভালোবেসে লোকে আমায় বলেন রাইটার নাম্বার ওয়ান।’নিজের সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বিবরণ দিতে গিয়ে এমনটাই বলতেন জনপ্রিয় অভিনেতা কাদের খান। বরাবরই অভিনয়ের মতোই তাঁর কলমেও ছিল ব্যাপক ধার। বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন তিনি।বলিউডের কিংবদন্তি অভিনেতা হওয়ার পাশাপাশি তিনি ছিলেন জনপ্রিয় কমেডিয়ান এবং লেখক।

তবে কমেডি চরিত্রে অভিনয় করার জন্যই সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় ছিলেন তিনি। আজ অর্থাৎ ২২ অক্টোবর তাঁর জন্ম বার্ষিকী। কাদের খান জীবনে একাধিক সিনেমায় অভিনয় করেই অনেক নাম যশ খ্যাতি অর্জন করেছিলেন। দীর্ঘ অভিনয় জীবনে তিনি বলিউডের প্রায় সমস্ত জনপ্রিয় তারকাদের সাথে কাজ করেছিলেন। তবে অমিতাভ বচ্চনের (Amitabh Bachchan) সাথেই তাঁর জুটি দর্শকদের মধ্যে সবচেয়ে বেশী জনপ্রিয়তা পেয়েছিল।জানা যায় দীর্ঘ অভিনয় জীব ৩০০-র বেশি সিনেমায় অভিনয় করার পাশাপাশি ২৫০-র বেশি সিনেমার জন্য ডায়ালগ লিখেছিলেন কাদের খান।

Kader Khan

সেসময় তাঁর কলম থেকেই উঠে এসেছে বলিউডের একাধিক জনপ্রিয় সিনেমার স্ক্রিপ্ট।তালিকায় রয়েছে ‘কুলি’, ‘অগ্নিপথ’, ‘অমর আকবর অ্যান্টনি’, ‘সত্তে পে সত্তা’, ‘কালিয়া’ ইত্যাদি অসংখ্য জনপ্রিয় সিনেমা। কিন্তু এমন একজন বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী কিংবদন্তি অভিনেতাকেই একবার ফিল্ম থেকে বার করে দেওয়া হয়েছিল। সমসাময়িক আর এক অভিনেতাকে ‘স্যরজি’ না বলাই ছিল এর অন্যতম কারণ।

Kader Khan

এবিষয়ে দুঃখ প্রকাশ করে একবার এক সাক্ষাৎকারে মুখ খুলেছিলেন কাদের খান নিজেই। বিস্ফোরক অভিযোগ এনে তিনি জানিয়েছিলেন বলিউড শহেনশা অমিতাভ বচ্চনকে স্যারজি বলে সম্বোধন না করার জন্য সিনেমা থেকেই বাদ দিয়ে দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। এমনিতে অমিতাভ বচ্চনের সাথে তাঁর দারুন বন্ধুত্ব ছিল বলেই জানা যায়। তখনও পর্যন্ত অভিতাভ বচ্চন বলিউডের শাহেনশা হয়ে ওঠেননি।

Kader Khan, Amitabh Bachchan,

 

সেই সময় থেকেই শুরু হয় তাঁদের দু’জনের বন্ধুত্ব। তাই অমিতাভকে ‘অমিত’ বলে ডাকতেই অভ্যস্ত ছিলেন কাদের খান। কিন্তু একটি সিনেমায় একসাথে কাজ করার সময় এক প্রযোজক অমিতাভকে দেখিয়ে তাঁকে বলেছিলেন, ‘ওই যে লম্বা লোকটা। গোটা বলি ইন্ডাস্ট্রি তাঁকে স্যরজি বলেই ডাকে।’ কিন্তু ঘনিষ্ঠ বন্ধু তথা ভাইকে ‘স্যরজি’ বলবেন না বলেই, সাফ জানিয়ে দেন তিনি। আর এর পরেই কাদের খানের মতো অভিনেতার কাজ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। এমনকি তাঁকে নাকি সেট থেকেও বার করে দেওয়া হয়েছিল।

Related Articles

Back to top button