গসিপবিনোদনসিনেমা

সিনেমার মতোই বাস্তবেও রামচরণ এবং এনটিআর পরিবারে ছিল ৩৫ বছরের কট্টর শত্রুতা, রইল বিস্তারিত

ব্লকবাস্টার হিট সিনেমা বাহুবলী সিনেমার খ্যাতনামা পরিচালক এস এস রাজামৌলি পরিচালিত সিনেমা ‘আর আর আর’ মুক্তির পর থেকেই বক্স অফিসে একের পর এক ছক্কা হাঁকিয়ে চলেছেন। এই সিনেমায় অভিনয় করার জন্য জনপ্রিয় দুই দক্ষিণী সুপারস্টার রামচরণ এবং জুনিয়র এনটিআর দুর্দান্ত অভিনয় মন ছুঁয়েছে দর্শকদের। রাজামৌলি পরিচালিত এই ছবিটি এখনও পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী ৭০০ কোটি টাকার ব্যবসা করে ফেলেছে।

এই সিনেমায় রামচরণ এবং জুনিয়র এনটিআর ছাড়াও দেখা গিয়েছে বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী আলিয়া ভাট এবং অজয় ​​দেবগনকে। তবে শুরু থেকেই সমস্ত লাইমলাইট গিয়ে পড়েছে রামচরণ এবং জুনিয়ার এনটিআর এর ওপরেই। এই সিনেমায় দেখা গিয়েছে একসময়ের প্রাণের বন্ধু দুই অভিনেতা পরবর্তীতে একে অপরের চরম শত্রুতে পরিণত হয়েছে। তবে আসল সত্যি জানার পর আবার একে অপরের বন্ধু হয়ে উঠতে দেখা যায় তাদের।

তবে জানলে হয়তো অনেকেই অবাক হবেন সিনেমার মতোই বাস্তবেও এই দুই অভিনেতার পরিবারের মধ্যে এক সময় ছিল দীর্ঘ দিনের শত্রুতা। একথা নিজের মুখেই জানিয়েছিলেন ‘আরআরআর’অভিনেতা জুনিয়ার এনটিআর নিজেই। সিনেমার প্রমোশনে গিয়ে অতীতের এই অজানা ইতিহাসের ঘটনার ওপর থেকে পর্দা সরিয়ে ছিলেন অভিনেতা।

আর আর আর সিনেমার অপর অভিনেতা রামচরণের পরিবারের সাথে দীর্ঘ প্রায় ৩৫ বছর পুরনো শত্রুতার গোপন সত্যির কথা প্রকাশ্যে এনে জুনিয়ার এনটিআর বলেছিলেন, “দুজন অভিনেতা যারা উভয়ই আলাদা-আলাদা ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে এসেছে, সেখানে আমি জানি না এটা বলা ঠিক হবে কিনা, কিন্তু একসময় আমাদের উভয়ের পরিবার দীর্ঘ ৩৫ বছরের পুরানো শত্রুতা ছিল। আর আজ আমরা দু’জনেই একই সিনেমায় অভিনয় করছি।’

তবে এখন নাকি সবটাই পাল্টে গিয়েছে। জানা যায় ‘RRR’ সিনেমায় অভিনয়ের সূত্রেই তাদের সম্পর্কে এখন এক বিরাট পরিবর্তন এসেছে। এনটিআর জানিয়েছেন এখন তারা দুজনেই একে অপরের অনেক ভালো বন্ধু। জুনিয়র এনটিআর রামচরণ কে নিজের ভাই মনে করেন। সম্প্রতি দুজনের একটি ছবি দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিনেতা লিখেছিলেন , “ রামচরণ আমার ভাই, ওকে ছাড়া ‘আরআরআর’ এর অস্তিত্বের কথা চিন্তাও করা যায় না। ও ছাড়া অন্য কেউ ই আল্লুরী সীতারাম রাজুর চরিত্র করতে পারত না। “

Related Articles

Back to top button