বিনোদনসিনেমা

দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান! চার বছরের বাঁধা বেরিয়ে শেষমেশ রিলিজ হচ্ছে জয়া আহসানের ‘ঝরা পালক’

দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। নিজ অভিনয় গুণে দুই বাংলার মানুষের মন জয় করেছেন অভিনেত্রী। এমনিতে সোশ্যাল মিডিয়ায় বরাবরই নিয়মিত অ্যাক্টিভ থাকেন অভিনেত্রী। আসলে আজ থেকে ৪ বছর আগে ২০১৭ সালে ‘ঝরা পালক’ ছবির শুটিং শুরু হয়েছিল। সেসময় কলকাতায় এসে ছবির শুটিং করেছিলেন জয়া।

জানা যায় সায়ন্তন মুখোপাধ্যায় পরিচালিত ‘ঝরা পালক’ (Jhora Palok) ছবিতে কবি জীবনানন্দর সঙ্গে লাবণ্যর সম্পর্কের ধূসর দিকটি ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। সিনেমায় কবি জীবনানন্দ দাশ (Jibanananda Das) এবং কবিপত্নী লাবণ্যের চরিত্রে জুটি বেঁধেছেন ব্রাত্য বসু এবং জয়া আহসান (Jaya Ahsan)। ছবিতে তরুণ জীবনানন্দ দাশের চরিত্রে অভিনয় করেছেন অভিনেতা রাহুল অরুণোদয় বন্দোপাধ্যায়।

উল্লেখ্য জীবনানন্দ দাশের লেখা প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘ঝরা পালক’। তা থেকে অনুপ্রাণিত হয়েই ছবির নামকরণ করা হয়েছে বলে খবর। উল্লেখ্য ঝরা পালক’ তৈরি হওয়ার পর নানা কারণে মুক্তি পিছিয়ে যায়। যার মধ্যে অন্যতম বাধা হয়ে দাঁড়ায় করোনা অতিমারী (Corona Pandemic)। তবে জানা যাচ্ছে করোনার কাঁটা সরিয়ে , আগামী বছর ফেব্রুয়ারি মাসে সিনেমা হলে মুক্তি পেতে পারে ছবিটি।

তবে জানা যাচ্ছে আসন্ন ২৭তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত হবে ছবিটি। আর তার আগে সিনেমা তৈরির প্রায় ৪ বছর পর বড়দিনের দিন অর্থাৎ ২৫ ডিসেম্বর প্রকাশ্যে আসে সিনেমার অফিসিয়াল ট্রেলার। ৩ মিনিট ১২ সেকেন্ডের এই ট্রেলারে দেখে বোঝা যাচ্ছে, সিনেমাটির কিছু অংশ সাদাকালো এবং কিছুটা রঙিন।

সিনেমায় কবি কাজী নজরুল ইসলামের চরিত্রে অভিনয় করেছেন সুপ্রিয় দত্ত, কবি সজনীকান্ত দাসের ভূমিকায় দেবশঙ্কর হালদার ও কবি বুদ্ধদেব বসুর চরিত্রে আছেন কৌশিক সেন। ছবি প্রসঙ্গে জয়া আহসান বলেছেন ‘মা ছাড়া জীবনানন্দ দাশের জীবনে একমাত্র নারী চরিত্র লাবণ্য দাশ। প্রথাগত ভাবনা থেকে যেভাবে লাবণ্য দাশকে দেখা হয়েছে আসলে তিনি তেমন ছিলেন না। অনেক বড় অনুপ্রেরণা ছিলেন জীবনানন্দ দাশের জন্য। চলচ্চিত্রটিতে সেসবই দেখানো হবে।’

Related Articles

Back to top button