বিনোদনসিনেমা

হাল খারাপ টলিউডের! সাউথের ছবি দেখে টুকে দিয়েছে, ‘বাজি’র ট্রেলার রিলিজ হতেই ট্রোলড জিৎ-মিমি

করোনা মহামারীর জেরে গতবছর থেকেই আটকে পড়েছে একাধিক সিনেমার রিলিজ। বলিউডের পাশাপাশি টলিউডের একাধিক ছবি দিন গুনছিল সিনেমা হল খোলার। এবার পুজোর আগে সিনেমা হল খুলে যেতেই একে একে রিলিজ হচ্ছে বেশ কিছু ছবি। যারমধ্যে রয়েছে টলিউডের সুপারস্টার জিৎ (Jeet) ও অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী (Mimi Chakraborty) অভিনীত ‘বাজি (Baazi)’ ছবিটিও। দীর্ঘদিন ধরে জিৎ ফ্যানেরা এই ছবিটির মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছেন।

সম্প্রতি রিলিজ হল জিৎ ফ্যানেদের বহুপ্রতীক্ষিত ‘বাজি’ ছবির ট্রেলার। আর ট্রেলার রিলিজ হতেই ভক্তদের মধ্যে উচ্ছাসের পাশাপাশি শুরু হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া ট্রোল। নতুন ছবির ট্রেলার রিলিজ হতেই ট্রোল! কেন জানেন? আসলে বলিউড হোক বা টলিউড বর্তমানে ভালো সিনেমার গল্পের অভাব দুই ইন্ডাষ্ট্রিতেই। এরজন্য সাউথের সিনেমার গল্প নিয়েই রিমেক তৈরী হচ্ছে একেরপর এক।

টলিউডে একাধিক ছবি সাউথের রিমেক হয়েছে। জিৎ নিজেও এই রিমেক ছবিতে অভিনয় করেছেন আর সেই ছবি হিটও হয়েছে বক্স অফিসে। কিন্তু এইভাবে অন্যের গল্প নিয়ে রিমেক আর কতদিন! তাছাড়া ছবির গল্প রিমেক আর হুবহু একইরকম নকল করা একবিষয় নয়। বাজি ছবির ট্রেলার প্রকাশ্যে আসতেই নেটিজেনরা বুঝতে পেরেছেন সাউথের ছবির একেবারে হুবহু নকল সিনেমাটি।

সেই কারণেই সোশ্যাল মিডিয়াতে ট্রোলিংয়ের শিকার হয়েছে ছবিটি। নেটিজেনরা ট্রেলার দেখেই বুঝতে পেরে গিয়েছে ছবিটি ২০১৬ সালের তেলুগু ছবি ‘নান্নাকু প্রেমাথু’র  এর একেবারে হবুহু নকল। জুনিয়ার এনটিআর ও রকুলপ্রীতের ছবিটিই এবার বাংলায় রিমেক করা হয়েছে। বাংলায় এই ছবির গল্পে দেখা মিলবে জিৎ ও মিমির।

প্রসঙ্গত, গতবছর পুজোর আগেই রিলিজ হবার কথা ছিল সিনেমাটির। ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে শুটিংয়ের জন্য লন্ডন পারি দিয়েছিলেন জিৎ মিমি। কিন্তু এরপর দেশে ব্যাপকভাবে করোনা ছড়িয়ে পড়ায় থমকে গিয়েছিল ছবির রিলিজ। এবার সেই ছবিই দর্শকদের উপহার দিতে পুজোর পঞ্চমীকে বেছে নেওয়া হয়েছে, অর্থাৎ আগামী ১০ই অক্টোবর রিলিজ হবে জিৎ-মিমির বাজি।

Related Articles

Back to top button