বিনোদন

ক্যান্সার সারিয়ে মেয়ের জন্য আরও ১৮ বছর বাঁচতে চাই! ৫২ তম জন্মদিনে এটুকুই চাওয়া ভরত কলের

প্রায় ১১৫টি ছবির পাশাপাশি ধারাবাহিকে চল্লিশ হাজার এপিসোডে কাজ করার অভিজ্ঞতা! এহেন ট্র্যাক রেকর্ডের কথা বললে বাংলা ইন্ডাস্ট্রিতে প্রথমেই নাম আসে ভরত কলের (Bharat Kaul)। সম্প্রতি ৫২ -তে পা দিলেন অভিনেতা। প্রথমে ‘অরুন্ধতী’-র লাইন প্রডিউসারের ভূমিকায় কাজ শুরু, তারপরে কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘খাদ’-এর পাশাপাশি ‘জাতিস্মর’, ‘জুলফিকার’-এ চুটিয়ে অভিনয় করেন ভরত। মুম্বইতে স্ট্রাগলিং অভিনেতা হিসেবে কাজ শিখতে গিয়ে প্রায় ৫৫টা ছবিতে অভিনয় করে চোদ্দো হাজার এপিসোডের কাজ শেষ করে ভরত ফেরেন কলকাতায় (Kolkata)!

তবে এত সাফল্য, এত পরিশ্রম-ও ফিকে হয়ে গিয়েছে একটি মাত্র অসুখের কাছে। মারণব্যাধি ক্যান্সারের সাথে দীর্ঘদিন লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন অভিনেতা। ‘ক্রনিক মাইলয়েড লিউকেমিয়া’য় আক্রান্ত ছিলেন তিনি। একসময় ইন্ডাস্ট্রিতে এহেন লড়াকু অভিনেতাকে ‘ক্যাসানোভা’ বলে ডাকা হত। তবু লড়াই ছেড়ে না পালিয়ে দাঁতে দাত চেপে সমস্ত কষ্ট সহ্য করে নিয়ে আজ বেশ খানিকটা সুস্থ অভিনেতা।

জন্মদিনে ছুটি নিয়ে নিজের পরিবারের সাথেই কাটিয়েছেন অভিনেতা। প্রথম বিয়ে সুখকর হয়নি অভিনেতার। বর্তমান স্ত্রী জয়শ্রী মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে এখন বেশ জমিয়েই সংসার করছেন ভরত। জন্মদিনে তাদের নিয়েই কেটেছে সময়। স্ত্রী রান্না করেছেন তার জন্য বিশেষ পদ। নিজের হাতে রাঁধছেন কাশ্মীরি রোগন জোস, আলুর দম। জয়শ্রী রাঁধছে বাঙালি মতে পাঁচ রকম ভাজা, ডাল, তরকারি ইত্যাদি।

এত সবকিছুর পর অভিনেতার একটাই সাধ, আরও ১৮ টা বছর তিনি বাঁচতে চান তার ছোট্ট মেয়ের জন্য। যতদিনে সে বড় হবে, নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে যাবে। আর তারপর আর কোনো চিন্তা রইবে না তার। ভরত যেন তার মেয়ের চালিকা শক্তি হয়ে থাকতে পারে এইটুকুই চাওয়া, তারপর জীবন থেকে ছুটি নিতেও আর কোনো খেদ রইবেনা তার।

Related Articles

Back to top button