বিনোদনভাইরালভিডিওসিরিয়াল

‘এবার বন্ধ করা হোক’! ৫০০ পর্ব সেলিব্রেশন ভিডিওয় ‘যমুনা ঢাকি’ সিরিয়াল বন্ধের দাবি নেটিজেনদের

বাঙালি দর্শকদের বিনোদনের চাহিদা মেটাতে সন্ধ্যে নামলেই টিভির পর্দায় বসে সিরিয়ালের (Serial) আসর। নানা স্বাদের নানা গল্পের সিরিয়াল দেখা যায় বিভিন্ন চ্যানেলে। আর দর্শকদের প্রিয় একটি সিরিয়াল হল জি বাংলার ‘যমুনা ঢাকি (Januma Dhaki)’। ঢাকির মেয়ে যমুনা জমিদার বাড়ির বৌ হয়েছে গল্পে। কিন্তু আর পাঁচটা সিরিয়ালের মত সেখানেও ষড়যন্ত্রে ভরপুর। যদিও দর্শকদের কাছে বেশ জনপ্রিয় সিরিয়ালটি।

টিআরপি তালিকার দিক থেকে দেখতে গেলেও বরাবর বেশ ভালো ফলাফল সিরিয়ালের। প্রথম পাঁচে থাকার দৌড়ে সর্বদাই রয়েছে যমুনা ঢাকি। বিগত কয়েক সপ্তাহে দ্বিতীয় পর্যন্ত হয়েছিল। গল্পে ইতিমধ্যেই দেখানো হয়েছে যমুনাকে ষড়যন্ত্র করে মেরে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছিল। যদিও আসলে মরেনি যমুনা, বদলে জ্যোতি হয়ে নিজের বাড়িতেই ফিরেছে সে। অপরাধীদের ধরিয়ে দিয়ে উপযুক্ত শাস্তি দিতে চায় যমুনা।

দেখতে দেখতে সিরিয়াল ৫০০ পর্বের গন্ডি পেরিয়েছে। যে কোনো সিরিয়ালের ক্ষেত্রেই এটা একটা বড় পাওয়া। ৫০০ পর্ব মিটতেই সেলিব্রেশনে মেতে উঠেছে সিরিয়ালের গোটা টিম। যমুনা অভিনেত্রী শ্বেতা ভট্টাচার্য, সংগীত অভিনেতা রুবেল দাস সহ সিরিয়ালের বাকি সদস্যরাও মেতে উঠেছেন এই সেলিব্রেশনে।

শুটিংয়ের সেটেই আনা হয়েছে একটি বড়সড় কেক। কেকের ওপরে লেখা রয়েছে ৫০০ পর্ব ও সাথে রয়েছে যমুনা ঢাকি সিরিয়ালের লোগো। সবাই মিলে হৈ হুল্লোড় করে কাটা হয়েছে কেক। আর কেক কাটা পর্ব মিটতেই যমুনা হাজির হয়েছে। একবছর পাঁচ মাস পর ৫০০ পর্ব সেলিব্রেশন সম্পর্কে কিছু কথা বলে দর্শকদের ধন্যবাদ জানান অভিনেত্রী। এরপর রুবেল দাস ও বাকি সদস্যরাও  একে একে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

সেলিব্রেশনের ভিডিও ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করা হয়েছে। সেই ভিডিও ভাইরাল হতেই দর্শকদেরা নিজেদের মন্তব্য জানিয়েছেন। তবে খুশি হওয়ার বদলে কমেন্ট বক্সে দেখা মিলেছে উল্টো পূরাণের। নেটিজেনদের অনেকেই সিরিয়াল বন্ধের দাবি করেছেন কমেন্টে। কেউ বলেছেন, এবার এটা বন্ধ করুন খুব বাজে সিরিয়াল। তো কেউ লিখেছেন, এই ডিমপঁচা টমেটো পঁচা সিরিয়াল টা বন্ধ করা উচিত।

Related Articles

Back to top button