বিনোদনসিরিয়াল

‘চেষ্টা করবো যাতে বাকিদের ভালো লাগে’! স্পষ্ট জবাবে নিন্দুকদের মুখ বন্ধ করে দিলেন জগদ্ধাত্রী

সিরিয়াল দেখা দর্শকদের একপ্রকার রোজকারের অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। দিনে দিনে দর্শকমহলেও বাড়ছে বাংলা সিরিয়ালের চাহিদা। তাই দর্শকদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে প্রায় প্রতি মাসেই বিনোদনমূলক  চ্যানেল গুলিও লাইন লাগিয়ে দিচ্ছে একের পর এক নিত্যনতুন সিরিয়ালের। এই যেমন কিছুদিন আগেই জি বাংলার পর্দায় শুরু হয়েছে নতুন ধারাবাহিক ‘জগদ্ধাত্রী’ (Jagadhatri)।

এই ধারাবাহিকে নায়িকা জগদ্ধাত্রী বাইরে যেমন শান্তশিষ্ট ঘরোয়া মেয়ে বাইরে ততটাই ডানপিটে রনংদেহি স্বভাবের। বাড়িতে সবাই তাকে জগদ্ধাত্রী বলে ডাকলেও বাইরে তাকে সবাই জ্যাস বলে ডাকে। ধারাবাহিকে এই চরিত্রে অভিনয় করছেন নবাগতা অভিনেত্রী অঙ্কিতা মল্লিক (Ankita Mallick)।  কিন্তু শুরু থেকেই এই চরিত্রে তার অভিনয় দেখে দর্শকমহলেও তৈরী হয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায় যেমন জগদ্ধাত্রীর অভিনয়ের প্রশংসা করা হয়, তেমনই জোটে সমালচনা।সিরিয়ালপ্রেমী দর্শকদের একাংশের দাবি চরিত্রটাকে ঠিকমতো টিভির পর্দায় ফুটিয়েই তুলতে পারছেন না এই অভিনেত্রী। অনেকেই বলতে শুরু করেছেন ক্যামেরার সামনে ঠিকমতো এক্সপ্রেশন দিতে পারছেন না অঙ্কিতা। এরইমধ্যে সম্প্রতি সমালোচক থেকে প্রশংসক সকলেই নিজের মতো করেই জবাব দিলেন অভিনেত্রী।

সম্প্রতি টলিউড ফোকাস কলকাতা নাম একটি চ্যানেলের সাথে সাক্ষাৎকারে বসেছিলেন অভিনেত্রী। সেখানে তিনি তাঁর অনুরাগীদের প্রতি যেমন কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তেমনই সমালোচকদের উদ্দেশ্যে অভিনেত্রী বলেছেন যাদের তার অভিনয় ভালো লাগছে না তিনি চেষ্টা করবেন আগামীদিনে আরও ভালো কাজ করে তাদের সকলের মন জয় করে নেওয়ার।

এছাড়া অভিনেত্রী জানিয়েছেন অনেকেই আছেন যারা এমন অনেক দাবি করেন যা পূরণ করা সত্যিই তার পক্ষে সম্ভব নয়।  তাই তাদের উদেশ্যে অভিনেত্রীর বার্তা ‘তিনি দুঃখিত তিনি তাদের কোনো সাহায্য করতে পারবেন না। সেইসাথে এদিন একটি মজার ঘটনা শেয়ার করেছেন অভিনেত্রী। অঙ্কিতা জানিয়েছেন তার জগদ্ধাত্রী নামটাকে ছোট করে শুটিং ফ্লোরে সবাই ‘জগা’ বলে ডাকেন।

অঙ্কিতা অভিনয়ে নতুন হলেও তিনি কিন্তু একজন জনপ্রিয় পেশাদার মডেল।  ইতিপূর্বে  তাকে একাধিক ব্রান্ডের মুখ হিসাবে দেখা গিয়েছে। একাধিক শাড়ির বিজ্ঞাপনি প্রচারের  হোর্ডিং-এও দেখা গিয়েছে অঙ্কিতাকে। অনেকেই হয়তো জানেন না পর্দার এই স্পেশাল ক্রাইম ব্রাঞ্চ অফিসার বাস্তবে আশুতোষ কলেজের সাইকোলজির ছাত্রী। লকডাউনের সময় কলেজে পড়তে পড়তেই মডেলিং শুরু করেছিলেন তিনি। সেখান থেকেই সুযোগ আসে অভিনয়ে।

Related Articles

Back to top button