বিনোদনভিডিও

জল্পনার অবসান! প্রকাশ্যে ইন্দ্রাণী হালদারের নতুন শো সম্প্রচারের সময়, চিন্তায় সুদীপা ভক্তরা

সারা সপ্তাহ ধরেই বিনোদনমূলক চ্যানেলগুলিতে চলতে থাকে একের পর এক সিরিয়ালের দাপট। তবে ইদানিং সিরিয়ালের পাশাপাশি দর্শকমহলে বাড়ছে রিয়েলিটি শোয়ের জনপ্রিয়তা। এই মুহূর্তে বাংলার জনপ্রিয় রিয়েলিটি শোগুলির মধ্যে অন্যতম সেরা রিয়ালিটি শো হল জি বাংলার ‘দিদি নাম্বার ওয়ান’ (Didi No 1)। দীর্ঘ ১০ বছরের বেশি সময় ধরে টিভির পর্দায় সম্প্রচারিত হয়ে চলেছে এই জনপ্রিয় গেম শো।

যাকে এক অন্য মাত্রা দিয়েছেন, টলিউড অভিনেত্রী তথা এই শোয়ের সঞ্চালিকা খোদ রচনা বন্দ্যোপাধ্যায় (Rachna Banerjee)। সারা সপ্তাহজুড়ে বিকেল পাঁচটা থেকে সম্প্রচারিত হয় এই শো। কিন্তু বিগত বেশ  কিছুদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল জনপ্রিয় অভিনেত্রী ইন্দ্রানী হালদারের নতুন গেম শো ‘ঘরে ঘরে জি বাংলা’ (Ghore Ghore Zee Bangla) আসায় এবার প্রায় শেষের মুখে রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিদি নাম্বার ওয়ান।

June Aunty Ushasie Chakraborty's funny video at Didi no 1

যার ফলে মন খারাপ হয়ে গিয়েছিল এই শোয়ের একনিষ্ঠ ভক্তদের। অবশেষে মিলল সুখবর। চ্যানেল কর্তৃপক্ষের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে ইন্দ্রানী হালদারের (Indrani Haldar)নতুন এই নন ফিকশন শো সম্প্রচারের সময় এবং তারিখ। জানা আছে আগামী বছরের শুরুতেই অর্থাৎ ২ জানুয়ারি বিকেল সাড়ে ৪ থেকে পাঁচটা পর্যন্ত আধঘণ্টার জন্য সম্প্রচারিত হবে ছোট পর্দার গোয়েন্দা গিন্নির নতুন গেম শো।

দিদি নাম্বার ওয়ান,Didi No 1,রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়,Rachna Banerjee,ইন্দ্রানী হালদার,Indrani Haldar,জি বাংলার রান্নাঘর,Zee Banglar Rannaghor,সুদীপা চ্যাটার্জী (Sudipa Chatterjee,ঘরে ঘরে জি বাংলা,Ghore Ghore Zee Bangla

কিন্তু এই স্লটেই  এতদিন দেখা গিয়েছে জি বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় রান্নার অনুষ্ঠান ‘জি বাংলার রান্নাঘর’ (Zee Banglar Rannaghor)। আর এই অনুষ্ঠানকে শুরু থেকেই এক অন্য মাত্রা দিয়েছেন এই অনুষ্ঠানের সঞ্চালিকা সুদীপা চ্যাটার্জী (Sudipa Chatterjee)। এমনিতে সোশ্যাল মিডিয়ায় এই তারকাকে নিয়ে নেটিজেনদের মাথাব্যথার শেষ নেই।

এমনিতে মাঝে মধ্যেই নানা ধরনের বিতর্কিত মন্তব্য করে শিরোনামে উঠে আসেন সুদিপা। তবে ইন্দ্রানী হালদারের নতুন শো ‘ঘরে ঘরে জি বাংলা’ আসায় দর্শকদের একাংশের ধারণা এবার জায়গা ছাড়ছেন সুদীপা।  যদিও এই বিষয়ে এখনও পর্যন্ত নিশ্চিত কোন খবর মেলেনি। কদিন ধরে শুধুই কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে মাত্র।

Related Articles

Back to top button