টাকা খাইয়ে অর্কদীপকে সারাগামাপা চ্যাম্পিয়ান করিয়েছেন ইমন! কটাক্ষের জবাব দিতে লাইভে এলেন গায়িকা


জী বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় গানের রিয়ালিটি শো ‘সারেগামাপা (Saregamapa)’। গতকাল অর্থাৎ রবিবারই ছিল সারেগামাপা ২০২০ এর গ্রান্ড ফাইনাল। আর এবারের সারেগামাপাতে মাটির গান গাওয়া অর্কদীপ মিশ্রের (Arkadeep Mishra) হাতেই উঠল সারেগামাপা চাম্পিয়ানের ট্রফি। কিন্তু মুশকিলটা হল সেখানেই, বিচারকদের মতে অর্কদীপ সারেগামাপা বিজয়ী হলেও নেটিজেনদের কাছে সেটা মোটেও গ্রহণযোগ্য হয়নি। নেটিজেনদের অনেকের মতেই ইটা অন্যায় হয়েছে, অর্কদীপের থেকে অনেক ভালো মানের গান গেয়েছে নীহারিকা বা অনুষ্কা। তাদের বদলে অর্কদীপকে বিজয়ী হিসাবে মেনে নিতে নারাজ দর্শকেরা।

আসলে সমস্যা হল অর্কদীপ যে শুধুমাত্র একজন সারেগামাপা প্রতিযোগী তা নয়। শোতে গায়িকা ইমন চক্রবর্তীর দলে ছিল অর্কদীপ। আর অর্কদীপ ইমন চক্রবর্তীর ‘গুরুভাই’। এদিকে ইমনের হাতে বিজয়ীর ট্রফি উঠলে ইমন তার ফেসবুকে পোস্ট করেন ‘অর্কদীপ মিশ্র তোমায় নিয়ে আমি গর্বিত’। তাই দর্শকদের একটা বড় অংশের মতে ইমন জিতিয়ে দিয়েছেন অর্কদীপকে।

গতকাল রাত থেকে আজ সকালের মধ্যেই নেটিজেনদের এই অভিযোগ ভাইরাল হয়ে পড়েছে ইন্টারনেটে। এমনকি ইমনের গর্বিত হওয়ার পোস্টের কমেন্ট বক্সে রয়েছে নানান কটাক্ষজনক মন্তব্য। এমনকি এক নেটিজনের মতে নিজেই টাকা খাইয়ে অর্কদীপকে বিজেতা করিয়েছেন ইমন চক্রবর্তী নিজেই। এই কটাক্ষকে এড়িয়ে যাননি গায়িকা। এবার কটাক্ষের জবাব দিতে ফেসবুক লাইভ আসলেন গায়িকা।

আজ অর্থাৎ সোমবার দুপুরে লাইভ এসে একেবারে বিস্ফোরক হয়েছেন ইমন চক্রবর্তী। লাইভ এসেই ইমন বলেছেন কারোর পক্ষপাতী হয়ে নয় বর্তমান পরিস্থিতি নিয়েই কিছু বলতে লাইভে আসা। একটা ছেলে প্রথম হয়েছে তার জন্য এতো সমালোচনা কেন? অন্য কেউ প্রথম হলেও কি এভাবেই সমালোচনা হতো? এছাড়াও ইমন বলেন বিচারকের আসনে যারা বসে আছে তারা যথেষ্ট দক্ষ ও গান বাজনার জগতে ভালো নাম রয়েছে তাদের। তাদেরকে নিয়েও এতটা নিচু মানের মন্তব্য করছেন! কতটা নামাচ্ছেন নিজেদের?

বিস্ফোরক হয়ে গায়িকা বলেন, ‘অনেকের মতে আমি নাকি টাকা খাইয়ে অর্কদীপকে জিতিয়েছি। তাদের বলি আমার এতো টাকা নেই, আর আমি নিজের জন্য কোনোদিন টাকা খাওয়াইনি। যদি টাকা খাওয়ানোরই হত তাহলে তাহলে তো আমার টিমের সকলকেই রেখে দিতাম! কেন এই ধরণের বাজে মন্তব্য করছেন! গান শুনতে ভালো না লাগলে শুনবেন না তবে এভাবে আক্রমণ করবেন না।

এরপর গায়িকা আরো বলেন, ‘অর্কদীপকে আমি দীর্ঘদিন ধরেই চিনি। আমাদের গুরু এক, কিন্তু সেটা আলাদা কথা। তার নিজস্ব লড়াইটাও তো রয়েছে! আপনারা ভাবছেন ফাইনালে অর্কদীপ শুধু জিতেছে। কিন্তু আসলে গ্রান্ড ফাইনালের মঞ্চে যে ৬ জন প্রতিযোগী ছিল তারা প্রত্যেকেই বিজেতা। শুধুমাত্র সেদিনের বিচারে ১৯-২০ এর পার্থক্যে জিতেছে অর্কদীপ। আর তাকেই আপনারা এভাবে অপমান করে যাচ্ছেন, তার মনের অবস্থাটাও একবার দেখুন! ১৫ মিনিটের ফেসবুক লাইভের শেষে ইমন বলেন, ‘নতুন যে সমস্ত ছেলেমেয়েরা গান করছে তাদের পাশে দাঁড়ান। শিল্পীদের সন্মান জানান, ভদ্রতা দেখান। দেখবেন সমাজটা আরো অনেক সুন্দর হয়ে উঠবে’।