গসিপবিনোদনসিরিয়াল

কাজ পেতে নয়, হতাশা কাটানোর জন্য রিল বানাই! মুখ খুললেন ‘লক্ষ্মী কাকিমা’ অপরাজিতা

এই মুহূর্তে বাংলা বিনোদন ইন্ডাস্ট্রির ভার্সেটাইল শিল্পীদের নামের তালিকা তৈরি করা হলে সেখানে অবশ্যই নাম থাকবে অপরাজিতা আঢ্যর (Aparajita Auddy)। অভিনেত্রী (Tollywood actress) হিসেবে তিনি কতখানি প্রতিভাবান তা বারবার প্রমাণ করেছেন তিনি। বড়পর্দা থেকে শুরু করে ছোটপর্দা- অপরাজিতা নিজের দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন সব মাধ্যমেই।

সোশ্যাল মিডিয়াতেও বেশ জনপ্রিয় পর্দার ‘লক্ষ্মী কাকিমা’। মাঝেমধ্যেই ট্রেন্ডিং নানান বিষয়ে রিলও বানাতে দেখা যায় তাঁকে। এটা কি প্রচারের আলোয় থাকার একটি পন্থা? সম্প্রতি আনন্দবাজার অনলাইনের তরফ থেকে এই প্রশ্ন রাখা হয়েছিল অভিনেত্রীর সামনে।

Aparajita Adhya

প্রশ্নের উত্তরে অপরাজিতা সপাট বলেন, ‘না, একেবারেই তেমন নয়। বেশ মজা লাগে আমার। ‘লক্ষ্মীকাকিমা সুপারস্টার’এর সেটের সব বাচ্চারা আমায় শিখিয়ে দিয়েছে। তবুও অনেক কিছুই বুঝি না। তবে নাচের স্কুলের গেলে সেখানকার ছাত্রছাত্রীরা বেশ আনন্দ পায়। এই রিলগুলো থেকেই অনেকে নাচের স্কুলের বিষয়েও জানতে পারেন। আর এই রিল তৈরি করলে আমার হতাশাও কাটে’।

সাফল্যের শীর্ষে রয়েছে, জনপ্রিয় ধারাবাহিকে অভিনয়ের পাশাপাশি শীঘ্রই আসছে অপরাজিতার ছবিও। তা সত্ত্বেও হতাশা হয়? জবাবে ‘লক্ষ্মী কাকিমা’ বলেন, ‘আমার কিন্তু ডিপ্রেশন হয় না। তবে কিছু কিছু সময় মনে হয় যে ঠিক ভালোলাগছে না বা একটু ঘেঁটে আছি। তখন মনে হয় একটু নেচে গেয়ে নিই- এটাই আর কী!’

Aparajita Adhya

এখন আবার শিল্পীদের সোশ্যাল মিডিয়ার জনপ্রিয়তা দেখে কাজ দেওয়া হয়। এই বিষয়ে কী মত অপরাজিতার? উত্তরে একবাক্যে অভিনেত্রী বলেন, ‘এটা বিশেষ করে মুম্বইয়ে হয়। তবে আমি কিন্তু কাজ পাওয়ার জন্য রিল তৈরি করি না। আর ইনস্টাগ্রাম ফলোয়ারের নিরিখে শিল্পীদের মান বিচার করা হলে সেটি খুব দুর্ভাগ্যজনক’।

অপরাজিতার কাজের দিক থেকে বলা হলে, শীঘ্রই মুক্তি পেতে চলেছে ‘কথামৃত’। নবাগত পরিচালক জিৎ মুখোপাধ্যায় পরিচালিত এই ছবিতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় এবং ‘লক্ষ্মী কাকিমা’। কেরিয়ারের শীর্ষে থাকাকালীন নবাগত পরিচালকের সঙ্গে কাজ করতে কেন রাজি হলেন? জবাবে অপরাজিতার সাফ উত্তর, ‘অনেক জনপ্রিয় পাকা পরিচালকদের সঙ্গে কাজ করেছি। ১৩৫টা শট নিয়েও অনেকে একটা ঠিক শট লাগাতে পাএ না। তাহলে সেক্ষেত্রে নতুন পরিচালকদের সুযোগ তো দেওয়াই উচিত। আর কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় রয়েছেন শোনার পর সেখানে ‘না’ বলার কোনও কারণই ছিল না’।

Related Articles

Back to top button