একটুও ঝগড়া করে না স্বামী! বড্ড বেশি ভালোবাসে তাই ডিভোর্স নিতে আদালতে স্ত্রী


স্বামী (Husband) একটু বেশিই ভালো। মোটেও ঝগড়া করেন না। বরং অতিরিক্ত ভালবাসেন স্ত্রীকে। কোনো কারণে কখনোই বকাবকিও করেন না স্বামী। স্ত্রী ভুল করলেও বকাঝকা কিংবা রাগারাগির বালাই নেই স্বামীর। সব মিলিয়ে বলা যেতেই পারে পত্নী নিষ্ঠ হতে চাই অথচ ভদ্রলোক তার স্বামী। কিন্তু মুশকিল হল ভাল মানুষ স্বামী পছন্দ নয় স্ত্রীর। তাই বিয়ের ১৮ মাস যেতে না যেতেই ডিভোর্স (Divorce) চেয়ে আদালতে মামলা ঠুকেছেন স্ত্রী। আর অদ্ভুত এই ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশে (Uttarpradesh)।

যেমনটা জানা যাচ্ছে স্বামীর অতিরিক্ত ভালবাসায় বিরক্ত হয়ে গেছে স্ত্রী।এত ভালোবাসা হজম করতে পারছেন না তিনি। যেখানে প্রায় দিনই বধূ নির্যাতন, সাংসারিক ঝগড়া,দাম্পত্য কলহের ঘটনা কানে আসে সেখানে আজব দৃষ্টান্ত তৈরী করেছেন এই মহিলা। শান্ত শিষ্ঠ স্বামীর প্রতি তার অভিযোগ বিগত ১৮ মাসের বিবাহিত জীবনে একদিনের জন্যও ঝগড়া হয়নি তাঁদের মধ্যে।

Wife Wants Divorce

 

শুধু তাই নয় আরো বাকি আছে, মহিলা জানান বাড়ির কাজ থেকে শুরু করে রান্নার কাজেও তাকে সাহায্যও করেন তাঁর স্বামী। এমনকি ভুল কিছু করে ফেললে চেঁচামেচি বা খারাপ কথা বলে ঝগড়া তো দূরের কথা হাসিমুখে ক্ষমা করে দেন। এমন স্বামীর সাথে ঘর করতে মোটেও চান না ওই মহিলা। স্বামী স্ত্রী হয়েছি যখন মাঝে মধ্যে একটু আধটু ঝগড়া তো হবে নাকি! সবসময় এতো ভালোবাসা আর ভালো ব্যবহার মোটেও ভালোলাগে না তাঁর। সেই কারণেই বিবাহ বিচ্ছেদের দাবি।

তাহলেই ভাবুন আর কি বাকি রইল দেখতে। পত্নী নিষ্ঠ হয়েও মুখে টু শব্দটি করেন না স্বামী সেই কারণেই আদালতের দ্বারস্থ স্ত্রী। এমন ঘটনা আর কোনো দিন শুনেছেন কিনা সত্যি জানা নেই। তবে যেমনটা জানা যায়  শরিয়া আদালত অবশ্য মহিলার পিটিশন খারিজ করে দিয়েছে। আদালতের মতে মহিলা অবুঝের মত আচরণ করছেন। যেখানে সব মেয়েরাই স্বামী হিসাবে একজন ভালো মানুষকে পেতে চায় সেখানে এমন ভালো স্বামীর থেকে দিচ্ছেন চাইছেন মহিলা।

তবে আদালতে বিবাহ বিচ্ছেদের আর্জি খারিজ হয়ে গেলেও হাল ছাড়েননি মহিলা। আদালতের পর নিজের এই অদ্ভুত সমস্যা নিয়েই হাজির হয়েছেন স্থানীয় পঞ্চায়েতে। সেখানে বিবাহ বিচ্ছেদ চাই জানানো হয়ে মহিলার স্বামীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। স্বামী বলেন, ‘আমি চাই ও সবসময় খুশি থাকুক। কিন্তু এতে মোটেও খুশি নয় বউ, সে চাই ঝগড়া করতে। এমন আজব সমস্যা দেখে হাত তুলে নিয়েছে পঞ্চায়েতও।


Like it? Share with your friends!

637
637 points