লাইফ স্টাইল

তীব্র গরমে চাই একটু স্বস্তি! বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি মেনে এই কাজগুলি করলে এসি ছাড়াই ঠান্ডা হবে ঘর

বঙ্গে গরম অনেকদিন আগেই পরে গিয়েছে। তবে দিন দিন যে হারে তাপমাত্রা বেড়ে চলেছে তাতে দিন কাটানো দুর্বিসহ হয়ে উঠেছে। বিশেষত দুপুরের সময়ে যেন সিলিং ফ্যান বা টেবিল ফ্যান কোনোটাই কাজ করছে না। তীব্র গরমের থেকে বাঁচতে অনেকেই বাড়িতে এসির ব্যবস্থা করেছেন। তবে এসি (AC) সবার পক্ষে কেনা সম্ভব নয়, তাছাড়া এসি কিনে নিলেও তা চালানোর খরচ অনেকটাই বেশি। তবে চিন্তা নেই আজ বংট্রেন্ডের পাতায় এসি ছাড়াই গরমে ঘর ঠান্ডা রাখার উপায় (How to keep room cool without ac) নিয়ে হাজির হয়েছি।

এসি ছাড়া ঘর ঠান্ডা রাখতে গেলে অনেকেই বলেন কুলার ব্যবহার করতে। তবে সেসব বলতে আমরা আসিনি, বরং যারা আর্কিটেক্ট অর্থাৎ বাড়ি তৈরী করেন তাদের মতে কিছু স্পেশাল টিপস রয়েছে যাতে ঘর বা গোটা বাড়িকে প্রাকৃতিকভাবে ঠান্ডা রাখা যায়। যেমন আপনি যদি দু তিনটে বায়ুর স্তর তৈরী করতে পারেন তাহলে খুব সহজেই তাপমাত্রা কন্ট্রোল করতে পারবেন। আজ এমনই কিছু উপায় আপনাদের সাথে ভাগ করে নেব।

১. ঘর ঠান্ডা রাখতে হলে শুরু থেকেই সেটা নিয়ে ভাবতে হয়। শুরু থেকেই বলতে ঘরে থাকার আগে ঘর রং করানোর সময় খেয়াল রাখতে হবে যাতে হালকা রং ব্যবহার করা হয়। বা সেরম হলে সাদা চুন দিয়েও রং করা যেতে পারে। এতে গ্রীষ্মের তাপ অনেকটাই প্রতিফলিত হয়ে যায়। অন্যদিকে ঘরের রং যদি গাঢ় রঙের হয় তাহলে তাপমাত্রা কিছুটা বেড়ে যায়।

interior house design with plants

২. ঘরের আশেপাশে বা জানলার বাইরে গাছ লাগানো। শুনতে অবাক হলেও গাছের বাতাস থেকে কিছুটা তাপ শোষণ করে নেয়। পাশাপাশি গাছের থেকে হওয়া বাষ্পমোচনের জন্য ঘরের হাওয়ার আর্দ্রতা বজায় থাকে। তাছাড়া দিনের বেলায় গাছের থেকে বেরোনো ফ্রেশ অক্সিজেন ঘরের পরিবেশকে আরও আরামদায়ক করে তোলে।

৩. বাঁশের পর্দা বা খড়খড়ি গরমে ঘর ঠান্ডা করতে কিন্তু ম্যাজিকের মত কাজ করে। কারণ এই খড়খড়ি শুধু পর্দা হিসাবে কাজ করে না সাথে আর্দ্রতা ফিল্টার করতে সাহায্য করে ও কাঠের হওয়ায় তাপ পরিবাহক কম হয় যে কারণে উষ্ণতা বাড়তে পারে না। আর ঘর ঠান্ডা রাখার পাশাপাশি এটা দেখতেও কিন্তু বেশ।

৪. ঘরের মধ্যে সঠিক হাওয়া বাতাসের আসা যাওয়া থাকা খুবই প্রয়োজন। অর্থাৎ যদি হওয়া চলাচলের পথ না থাকে তাহলে গরম হাওয়া ঘরেই আটকে পড়বে ফলে ঘর স্বাভাবিকভাবেই আরও বেশি গরম হয়ে উঠবে। বিশেষ করে সকাল ও সন্ধ্যের সময় ঘরের জানলা খোলা রাখা উচিত।

৫. প্রাকৃতিক কাদা মাটির প্লাস্টার একটি দুর্দান্ত উপকরণ যেটা দিয়েই ঘরের বাইরেটা যদি প্লাস্টার করা হয় তাহলে সূর্যের রোদ থেকে তাপমাত্রা অনেকটাই কম শোষণ হয়। যার ফলে ঘরের ভিতরের অংশ অপেক্ষাকৃতভাবে ঠান্ডা থাকে। বা চাইলে ঘর তৈরির সময় হিট প্রটেকটিভ উইন্ডো ফিল্ম জানালায় ব্যবহার করতে পারেন। যার ফলে দিনের বেলায় রোদ ঘরে আসতে পারবে না আর গরমও কম হবে।

Related Articles

Back to top button