গসিপবিনোদনভাইরালভিডিওসিনেমা

নায়কেরা দু’ঘন্টা দেরিতে আসে, জুতো বেঁধে দিতে হয় সহকর্মীদের! টলিউড নিয়ে বিস্ফোরক হিরণ

যতই হিন্দি ইংরেজি সিনেমা আসুক টলিউডের (Tollywood) সিনেমার ক্রেজ কিন্তু আজও বাঙালিদের মধ্যে রয়েছে। বাংলা সিনেমার অভিনেতাদের মধ্যে বেশ জনপ্রিয় হিরণ চট্টোপাধ্যায় (Hiron Chatterjee)। একসময় ভালোবাসা ভালোবাসা, জিও পাগলা, নবাব নন্দিনী, জামাই ৪২০ এমন একাধিক সুপারহিট  ছবি উপহার দিয়েছেন দর্শকদের। তবে বর্তমানে রাজনীতিতে যোগ দেওয়ায় সেভাবে সিনেমায় দেখা মেলে না অভিনেতার। সম্প্রতি টলিউড নিয়ে বেশ কিছু অজানা তথ্য শেয়ার করলেন অভিনেতা হিরণ।

সম্প্রতি সংবাদ মাধ্যমের সাথে সাক্ষাৎকারে বসেছিলেন অভিনেতা। সেখানেই নিজের জীবনের নানা কথা শেয়ার করেন। কিভাবে অভিনয়ে আসা। পরবর্তী ছবি কবে আসতে চলেছে, দর্শকদের এমন নানা প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন তিনি। সাথে টলিউডে নিজের শুরুর দিনের কথা ও কিছু অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন।

উলুবেড়িয়ার প্রত্যন্ত এক গ্রামের ছেলে হিরণ। অভাবের মধ্যে দিয়ে গ্রামেই বেড়ে ওঠা এরপর বড় হয়ে আর পাঁচটা সাধারণ যুবকের মত চাকরির খোঁজ। ভালো একটা চাকরিও জুটেছিল, সময়ে বাধা চাকরিতে নিয়মমতই চলত কাজ। নামকরা কোম্পানিতে চাকরির সূত্রে দেশের বিভিন্ন জায়গায় যাতায়াতও করতে হত। এমনই একবার কাজের সূত্রেই মুম্বাইতে পাড়ি। কিন্তু সেই একঘেয়ে জীবন হটাৎই পাল্টে যায়।

সকাল থেকে রাত অফিসের কাজ ছেড়ে অভিনয়ের দিকে পা বাড়ান হিরণ। হিরো হবেন এমন কোনো নিশ্চয়তাই ছিল না, তবে ইচ্ছা আর চেষ্টা ছিল। অভিনয়ের দক্ষতার জেরে আজ তিনি টলিউডের অভিনেতাদের মধ্যে একজন। তবে কর্পোরেট চাকরির কারণে সময়ের সাথে পা মিলিয়ে চলতে একপ্রকার অভ্যস্তহয়ে পড়েছিলেন। তাই শুটিং ফ্লোরে টাইমে তো বটেই বরং সময়ের দুঘন্টা আগেই পৌঁছে যেতেন।

ছবির শুটিংয়ের জন্য দু’ঘন্টা আগে হাজির হয়ে যেটা হিরণ দেখলেন তাতে বেশ খানিকটা অবাক হলেন। কেন? কারণ লোকেশনে তিনি পৌঁছালেও আর কেউ নেই, না আছে মেকআপ ভ্যান, না আছে বাকি সহকর্মী বা শিল্পীরা না কেউ। এরপর দুঘন্টা কেটে যাবার পর ধীরে ধীরে সবাই আসে। বাকিরা এসে অভিনেতাকে বোঝায়, ‘তুমি তো আর এখন কোম্পানির কর্মী নও, নায়ক হয়েছ। এখন নিজের জনপ্রিয়তা বাড়াতে হবে। সময়ের আগে নায়ক চলে এলে হয় নাকি!

এরপর মেকআপ বাজে গিয়ে সাজগোজ শেষ হলে আরও চমকে যান তিনি। তিনি জানতে পারেন নায়কদের ও সহ অভিনেতাদের মেকআপ শেষ হলে সহকারীরা তাদের পায়ে মোজা জুতোটা পর্যন্ত পরিয়ে দেয়। টলিউডে নাকি এটাই রীতি। যদিও এই রীতি হিরণ মেনে নিতে পারেননি। গ্রামের ছেলে থেকেই অভিনেতা তথা বিধায়ক হলেও আজও নিজের জুতো ও মোজা নিজেই পড়েন হিরণ।

Related Articles

Back to top button