ভালোবাসা কি আর লুকানো যায়! সৌজন্য গুনগুনের মান অভিমানের দৃশ্য মন মেতেছে দর্শকদের


বাঙালির কাছে বেশ প্রিয় বলা যেতে পারে বাংলা সিরিয়াল (Bengali Serial)। আকাশের সূর্যিমামা গুডবাই বলে দিগন্ত পেরিয়ে সন্ধ্যা নামলেই টিভির হন সকলে। টিভিতে নানা গল্পের নানান সিরিয়াল রয়েছে। তাঁর মধ্যে কিছু সিরিয়াল একেবারে নিয়ম করেই দেখতে বসেন দর্শকেরা। বাঙালি দর্শকদের এই প্রিয় সিরিয়ালের তালিকায় প্রথমদিকেই রয়েছে খড়কুটো (Khorkuto)। দুস্টু মিষ্টি একটা মেয়ে গুনগুন গিয়ে পড়েছে গোমড়ামুখো সৌজন্যের কাছে। কিভাবে মানিয়ে নেবে দুজন সেই নিয়েই গল্প।

খড়কুটো khorkuto

অবশ্য প্রথমদিকে দুজনের মধ্যে একেবারেই বনিবনা না হলেও ধীরে ধীরে প্রেমের উদয় হচ্ছে দূজনেরই। বিয়ের পর বাড়িতে এসে থেকেই বাড়ির সকলের সাথে একেবারে মিশে গিয়েছে গুনগুন। নিজের পাগলামি আর মিষ্টি স্বভাব দিয়ে যৌথ পরিবারের সকলের প্রিয় সদস্য পরিণত হয়েছে গুনগুন। অবশ্য ধীরে ধীরে সৌজন্যের মনেও ভালোবাসার ফুল ফুটিয়েছে গুনগুন। গুনাগুনের পাগলামি দেখে এমনই অভ্যস্ত হয়ে পড়েছে সৌজন্য যে তাকে ছাড়া আর ভালো লাগে না।

দুজনের মনে ভালোবাসার উদয় হলেও মান অভিমান রয়েছে ষোলো আনা। কখনো একেঅপরকে ভালোবাসার কথা স্পষ্টই ইঙ্গিত দিচ্ছে দুজনে তো কখনো আবার খুনসুটি রাগ। এই নিয়েই চলছে কাহিনী, আর দর্শকরাও বেশ এনজয় করছে এমন একটা মিষ্টি প্রেমের গল্প। তাই তো টিআরপি তালিকাতেও বরাবরই প্রথম পাঁচের মধ্যে আসা যাওয়া লেগেই রয়েছে  খড়কুটোর।

খড়কুটো Khorkuto Serial

সম্প্রতি সিরিয়ালের একটি দৃশ্য বেশ ভাইরাল হয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। ভিডিওতে নিজের অজান্তেই সৌজন্যকে যে গুনগুন ভালোবেসে ফেলেছে সেই কথা বলতে দেখা যাচ্ছে। প্রথমে গুনগুন সৌজন্যকে বলে যে আসলে তাঁর ভাগ্যটাই খারাপ এমন একটা বউ জুটেছে! চাইলে সৌজন্য গুনগুনকে ছেড়ে দিতেই পারে।

Khorkuto

এরপর কথায় কথায় অভিমানী গুনগুনের মুখ থেকে বেরিয়ে যায় ‘প্রথমে পছন্দ করতাম না তবে …’।গুনগুনের এই কথা শেষ হতে না হতেই সৌজন্য বলে ওঠে, ‘তবে কি? এখন অল্প অল্প পছন্দ হল নাকি’! তাহলেই বুঝুন, দুজনেই দুজনকে ভালোবেসে ফেলেছে অথচ খোঁচা দিতে কেউ কমতি নয়। স্বামী স্ত্রীর এই মান অভিমানের দৃশ্যটি সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করা হলে তা বেশ ভাইরাল হয়ে পড়েছে।