বিনোদনসিরিয়াল

পরের সন্তান কি আর নিজের হয়! ভুল বুঝতে পেরে অনুশোচনার সুর গুনগুনের গলায়

বাংলা বিনোদন জগতের অন্যতম অঙ্গ হল সিরিয়াল। তাই সন্ধ্যা নামার সাথে সাথেই সমস্ত কাজ সেরে হাতে টিভির রিমোট হাতে নিয়ে পরিবারের সবাই মিলে বসে পড়েন টিভির সামনে। দর্শকদের অত্যন্ত পছন্দের এমনই একটি জনপ্রিয় মেগা ধারাবাহিক হল স্টার জলসার খড়কুটো (Khorkuto)। হাসি-মজায় ভরপুর মুখার্জি পরিবারের যৌথ পারিবারিক সম্পর্কের প্রেক্ষাপটে গুনগুন-সৌজন্যের খুনসুটি নিয়ে তৈরি হয়েছে এই সিরিয়াল।

তবে গত কয়েকদিন ধরেই অভিনেত্রী তৃণা সাহা ওরফে গুনগুনের আচরণে তাঁর দিকে একের পর এক উঠতে শুরু করেছে দোষারোপের আঙুল। ঘটনার সূত্রপাত হয় বাড়ির নতুন সদস্য অর্থাৎ পুচু সোনাকে কেন্দ্র করে। মা হারা গুনগুন পুচুসোনাকে এতটাই ভালোবেসে ফেলেছিল যে কোথাও গিয়ে মিষ্টির থেকেও বেশি অধিকারবোধ দেখিয়ে ফেলছিল সে। যা মা হয়ে মেনে নিতে পারছিল না মিষ্টি সহ বাড়ির অন্যান্য সদস্যরা।

এসবের মধ্যেই একদিন মিষ্টির সাথে তর্কাতর্কিতে গুনগুনের হাত থেকে মাটিতে ছিটকে পড়ে যায় একরত্তি পুচুসোনা। এরপরেই হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। গোটা ঘটনায় পরিবারের সকলেই বীতশ্রদ্ধ হয়ে ওঠে গুনগুনের উপর। সকলেই গুনগুনকে কাঠগড়ায় তুলে দোষারোপ করতে শুরু করে।মেয়ের অপমানের কথা জানতে পেরে গুনগুনকে চিরকালের জন্য মুখার্জী বাড়ি থেকে নিয়ে চলে আসে তার ড্যাডি।

তবে গুনগুনের আচরণে বিরক্ত হলেও বাড়ির কেউই চাননি গুনগুন বাড়ি ছাড়া হোক। অন্যদিকে শিশুসুলভ গুনগুনকে এভাবে বারবার অপমানিত হতে দেখে বেজায় চটেছেন তাঁর অনুগামীরা। সিরিয়ালের প্রিয় চরিত্র গুনগুনের অপমানে দারুন কষ্ট পেয়েছেন তারা। আর কষ্টের ছাপ স্পষ্ট গুনগুন ভক্তদের সোশ্যাল মিডিয়ায় হ্যান্ডেলে। সম্প্রতি গুনগুনের সাপোর্টে মুখ খুলেছে খড়কুটো সিরিয়ালের এমনই একটি ফ্যানপেজ।

আজ এই পেজের তরফ থেকে একটি ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে নিজের ভুল বুঝতে পেরে পুচু সোনার মা মিষ্টি গুনগুনকে ফোন করেছে। সবটা শুনে গুনগুনও নিজের দোষ গুলো মেনে নেয়। অনুশোচনার সুরে গুনগুন বলতে থাকে ‘আমারই ভুল ছিল। নিজের সন্তান নিজের নিজেরই হয়। তাছাড়া আমি একটা জিনিস বুঝতে পেরেছি যা নিজের তা নিজেরই থাকে,যা অন্যের নয় তা কখনও নিজের হতে পারে না।’

Related Articles

Back to top button