ভাইরালভিডিও

পণ চাই ১০ লক্ষ টাকা, নাহলে বন্ধ বিয়ে! বরকে ধরে শুটিয়ে লাল করে দিল কনেযাত্রীরাই, রইল ভিডিও

শীতকাল মানেই বিয়ের মরশুম (Wedding Season) একথা আলাদা করে বলার কিছুই নেই। তবে বিয়ে মানে তো আর শুধু বিয়ে নয় সাথে নাচ গান হৈ হুল্লোড় খাওয়া দাওয়া সবই থাকে। আর বিয়ে বাড়িতে মাঝে মধ্যেই নানান মজার কান্ড কারখানা হয় যেগুলো ক্যামেরাবন্দি করে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করে দিলেই ভাইরাল (Viral Video) হয়ে পরে। তাছাড়া আজকালকার সমাজে প্রথা ভাঙার ঘটনা প্রতিবছরেই নজর কাড়ে।

সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হওয়া বিয়ের ভিডিওতে বিয়ের কণের মত বরকেও সিঁদুর পড়াতে দেখা গিয়েছে। আবার কণেকে ছুঁয়ে দেখেছে বলে ক্যামেরা ম্যানকে থাবড়ে দিতেও দেখা গেছে। এমনকি কিছুদিন আগেই একটি ভিডিও ব্যাপক ভাইরাল হয়ে পড়েছিল যেখানে দেখা গেছে বিয়ের সময় প্রাক্তন প্রেমিক এসে সিঁদুর পরিয়ে দিয়েছে বিয়ের কণেকে।

সম্প্রতি আবারো এক বিয়ের বাড়ির কান্ড হু হু করে ভাইরাল হয়ে পড়েছে নেটপাড়ায়। যেখানে বিয়ে করতে আসা বরকেই শুটিয়ে লাল করে দিতে দেখা যাচ্ছে। কিন্তু হটাৎ কি এমন হল যে বরের ওপর এমনভাবে চড়াও হয়ে গেল আমজনতা। এবার সেই প্রসঙ্গে আসা যাক। আজকের দিনে দাঁড়িয়ে সমাজে পণ প্রথা প্রায় বিলুপ্ত ও আইনত অপরাধ যোগ্য। তবুও কিছু মানুষ লোভীর মত পণের দাবি করেন।

ভাইরাল ভিডিওতে যে বরকে মার খেতে দেখা যাচ্ছে তিনি পণের টাকা চাইতে গিয়েই কণেযাত্রীর হাতে মার খেয়েছেন। যেমনটা জানা যাচ্ছে বিয়ের জন্য মেয়ের বাড়ির কাছ থেকে লাখ টাকার হীরের আংটি থেকে ১০ লক্ষ টাকা নগদ চেয়েছিল ছেলেপক্ষ। মেয়েপক্ষ তাদের সেই দাবি মেনে তিন লক্ষ টাকা ও হীরের আংটি দিয়েছিল কিন্তু বাকি টাকাটা জোগাড় করতে পারেননি। এদিকে টাকা না পেলে বিয়ে হবে না এই বলে বেঁকে বসে ছেলেপক্ষ।

এই দেখেই মেজাজ বিগড়ে যায় মেয়ের বাড়ির লোকেদের দিয়ে। তারপর বরকে ধরে শুরু হয় ধোলাই পর্ব। উত্তেজনা বাড়ায় বিয়ের মণ্ডপে হাজির হয় পুলিশ। আর তারপরেই জানা যায় গুণধর বর  বাবাজি এর আগেও দু-তিনবার বিয়ে করেছেন। তবে এবারে আর বেঁচে ফিরতে পারেনি সে, ধরা পড়ে গিয়েছে।

যেমনটা জানা যাচ্ছে ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদ জেলার সাহিবাবাদ এলাকায়। ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার হোৱৰ পর থেকেই ঝড়ের বেগে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। তবে ভিডিওটি থেকে শিক্ষা নেওয়া উচিত পাত্রীপক্ষদের। মেয়েদের বিয়ের জন্য কখনোই পণ দেওয়া উচিত হয়। আর যারা এই জঘন্য মানসিকতা  রাখেন তাদের জন্য এই ভিডিওটি একটি দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।

Related Articles

Back to top button