বিনোদন

ঠোঁটে ঠোঁট ছুঁইয়ে পুলিশকে কেক খাইয়ে দিচ্ছেন পরীমণি! প্রশ্ন উঠছে বাংলাদেশের পুলিশের বিরুদ্ধে

দিন কয়েক আগেই বাড়ি থেকে বিপুল পরিমাণ ওয়াইন, মাদক আইস, এলএসডি ও মাদক সেবনের সরঞ্জাম রাখার অভিযোগে আটক করা হয় ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী পরিমণিকে (Porimoni)। বুধবার একেবারে নাটকীয়ভাবে টানটান উত্তেজনার মধ্যেই বাংলাদেশের এই অভিনেত্রীকে আটক করে ব়্যাব অর্থাৎ ব়্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ান (RAB)। আপাতত ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের অধীনে কারাবাসেই রয়েছেন মডেল অভিনেত্রী।

এরপর তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে গিয়ে একান্ত সময় কাটানোর অভিযোগ ওঠে বাংলাদেশের গোয়েন্দা পুলিশের ADC গোলাম সাকলায়েনের বিরুদ্ধে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ জেরার নাম করে অভিযুক্ত পরীমণির সঙ্গে একান্তে ১৮ ঘন্টা সময় কাটিয়েছেন তিনি। এর জেরে তদন্তের দায়িত্ব থেকে বাদ দিয়ে কঠিন শাস্তিও দেওয়া হয়েছে তাকে।

সূত্রের খবর, ব্যবসায়ী নাসিরুদ্দিনের বিরুদ্ধে যখন যৌন হেনস্থার মামলা চলছে তখনই নায়িকা পরীমনির সাথে তার একটি সখ্যতা তৈরি হয়। পরীমণির গ্রেফতারের পর বিষয়টি জানাজানি হয়, ইতিমধ্যেই পরীমণির সঙ্গে সাকলায়েনের একটি ঘনিষ্ঠ ভিডিও ভাইরাল হয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তাদের সম্পর্ক নিয়ে চলছে নানান গুঞ্জন।

এই ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই প্রশ্ন উঠছে বাংলাদেশ পুলিশের ভূমিকা নিয়েও। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, সাকলায়েনের জন্মদিনের পার্টিতে উপস্থিত হয়েছিলেন পরীমনি। টেবিলে সাজানো নীল রঙের বড় কেক পরীমণির হাত ধরে কাটতে দেখা গিয়েছে পুলিশের ওই অফিসারকে।

এরপর হাতে নয় ঠোঁটে ঠোঁট রেখে একে অপরকে কেক খাইয়ে দিতে দেখা যায় সাকলায়েন ও পরীমণিকে। এরপর প্রকাশ্যেই দুজন দুজনকে চুমুও খান। এই ঘটনা জানাজানি হতেই ঢাকা মহানগর পুলিশের (DMP) গোয়েন্দা গুলশন বিভাগের অতিরিক্ত উপকমিশনার মো. গোলাম সাকলায়েনকে বদলি করা হয়েছে, এবং এই তদন্তের দায়ভার থেকে তাকে ছেঁটে ফেলাও হয়েছে।

Related Articles

Back to top button