ভাইরালভিডিও

বাবার শ্রাদ্ধে ফুড ভ্লগিং করছে মেয়ে! উচ্ছন্নে গেছে, ভিডিও দেখে ছিঃ ছিঃ করছে গোটা নেটপাড়া

বর্তমান দুনিয়া ইন্টারনেট আর সোশ্যাল মিডিয়া (Social Media) ছাড়া একপ্রকার অচল। রোজ সোশ্যাল মিডিয়ার সৌজন্যে আমরা নানান ধরণের ছবি, ভিডিও দেখতে পাই। এর মধ্যে কোনও কোনও ছবি, ভিডিও আমাদের মন ছুঁয়ে যায়। আবার কিছু কিছু জিনিস দেখে নেটিজেনরা ধিক্কার জানায়। সম্প্রতি নেটপাড়ায় এমনই একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যা দেখে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন নেটিজেনরা।

ইন্টারনেট-চালিত এই যুগে অনেকেই নানান ধরণের ভিডিও বানিয়ে রোজগার করে থাকেন। খাওয়াদাওয়া থেকে শুরু করে লাইফস্টাইল, ট্রাভেল- নানান ধরণের ভ্লগিং হয়ে থাকে। বিশেষত, এখন খাওয়াদাওয়া সংক্রান্ত ভ্লগিং অর্থাৎ ফুড ভ্লগিং (Food Vlogging) তো দারুণ জনপ্রিয়।

Rowhi Rai food vlogging, Rowhi Rai food vlogging on Father's shraddha

কিন্তু সম্প্রতি একজন ফুড ভ্লগারের ভিডিও দেখেই নেটপাড়ায় ‘ছিঃ ছিঃ’ রব পড়ে গিয়েছে। মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সেই ভিডিও। নিশ্চয়ই ভাবছেন কী এমন করেছেন সেই ভ্লগার? সংশ্লিষ্ট ভ্লগার নিজের বাবার শ্রাদ্ধের দিন ফুড ভ্লগিং করেছেন। যা সত্যিই বিরল।

প্রিয়জনের বিয়োগে সাধারণত মানুষ শোকে পাথর হয়ে যান। কিন্তু ব্যতিক্রম এই তরুণী। তিনি নিজের বাবার শ্রাদ্ধের দিন খুশি মনে ফুড ভ্লগিং করছিলেন। সেই ফুড ভ্লগারের নাম রুহি রাই (Rowhi Rai)। এই নামেরই একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে ভিডিওটি শেয়ার করা হয়েছে। আর তা মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে নেটদুনিয়ায়।

Rowhi Rai food vlogging, Rowhi Rai food vlogging on Father's shraddha

ভাইরাল ভিডিওয় সংশ্লিষ্ট তরুণীকে বলতে শোনা যায়, ‘আজ আমার বাবার শ্রাদ্ধ। আমরা প্রত্যেক বছর এটি করি’। এরপর তিনি বলেন, সারাদিনে নুন এবং তেল দেওয়া খাবার একবারই খেতে পারবেন। কিন্তু মাঝে মিষ্টি বা পানীয় জাতীয় খাবার খেতে পারবেন। এরপর তিনি বলেন, সকালে সে বাইরে থেকে অর্ডার করে ড্রাইফ্রুট এবং ওটমিল খেয়েছে। সেটি খেতে দারুণ সুস্বাদু ছিল বলে জানান তিনি। এরপর দুপুরে বন্ধুর বাড়ি গিয়ে মেথির পরোটা এবং আলুর সবজি খেয়েছেন। সেগুলির পর দোকানে গিয়ে গোলাপি লেমনেডও খেয়েছেন বলে জানান সংশ্লিষ্ট তরুণী। বাবার শ্রাদ্ধের দিন এভাবেই কাটিয়েছেন বলে জানান তিনি।


রুহি নামের সংশ্লিষ্ট তরুণী এই ভিডিওটি শেয়ার করার সঙ্গে সঙ্গেই সেটি ভাইরাল হয়ে যায়। সেটি দেখে নেটিজেনরা কড়া নিন্দা করেছেন। কেউ লিখেছেন, ‘জীবনের সব জিনিস কনটেন্ট হয় না। তোমার লজ্জা হওয়া উচিত’। তুমুল কটাক্ষ শোনার পর চ্যানেল থেকে ভিডিওটি মুছে দেওয়া হয়। যদিও ততক্ষণে সেই ভিডিও ছেয়ে গিয়েছে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে।

Related Articles

Back to top button