গসিপবিনোদন

বিয়ে না করেই সন্তান জন্ম দিয়েছেন একতা কাপুর ! নিজের এই অবস্থার জন্য বাবা জিতেন্দ্রকেই দায়ী করেন তিনি

টিভি ইন্ডাস্ট্রির রানী হিসেবে পরিচিত একতা কাপুরের আজ আর কোনো পরিচয়ের প্রয়োজন নেই। তিনি নিজেকে এতটাই সফল করেছেন বর্তমানে গোটা ইন্ডাস্ট্রি প্রায় নিজের মতো করে শাসন করছেন তিনি । একাধিক টিভি শো পরিচালনা করে প্রায় রেকর্ড গড়ে ফেলেছেন তিনি।  জানিয়ে রাখি , একতা কাপুর মাত্র ১৫বছর বয়সে তার ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন। এরপর তিনি টিভির জগতে পা রাখেন এবং একের পর এক হিট টিভি শো তৈরি করে তিনি হয়ে ওঠেন টেলিভিশন কুইন।

এটি একটি রেকর্ড যে একতা কাপুর যে শোগুলি তৈরি করেন তা বেশিরভাগই হিট হয়, যেমন তার অনেক পুরানো শো, কসৌটি জিন্দেগি কি, কাহিন তো হোগা আকবর, নাগিন, কুমকুম ভাগ্য এবং কুন্ডলি ভাগ্য সহ অনেক সিরিয়াল বহু বছর ধরে দর্শকদের হৃদয়ে রাজত্ব করেছিল। . কথিত আছে, তিনি বহু মানুষের জীবন বদলে দিয়েছেন। আসলে, তার একটি সিরিয়ালে কাজ পেয়ে, বহু তারকা শুন্য থেকে শুরু করে আজ বিশাল সফল হয়েছেন। তাই একটা কাপুর অনেক তারকার কাছে ভগবান তুল্য।

একতা কাপুর Ekta Kapoor

একতা কাপুরের শিক্ষাগত যোগ্যতার কথা যদি বলি, তাহলে তিনি বম্বে স্কটিশ স্কুল থেকে তার শিক্ষা শেষ করেছেন। তিনি মিঠিবাই কলেজ থেকে কলেজ স্নাতক হন। একতা কাপুরের শৈশব কেটেছে মুম্বাইয়ে এবং তিনি কঠোর পরিশ্রম করে এই পর্যায়ে পৌঁছাতে সক্ষম হন।

আপনারা সবাই জানেন অভিনয় জগতের সঙ্গে একতা কাপুরের পুরনো সম্পর্ক রয়েছে। ঘরে ফিল্মি পরিবেশের কারণে তাকে এই ইন্ডাস্ট্রিতে আসতে হয়েছে এটা নতুন কিছু নয়। প্রযোজকের আগে, একতা কাপুর একজন ইন্টার্ন হিসাবে কাজ শুরু করেছিলেন, তারপরে ২০০১ সালে, একতা কাপুর ফিল্ম প্রোডাকশন দিয়ে হিন্দি সিনেমায় আত্মপ্রকাশ করেছিলেন। প্রথম দিকে তার প্রজোজিত বেশ কিছু কাজ ব্যর্থও হয়েছিল , তবে আজ তিনি যাই বানান তা সফল হবেই।

একতা কাপুর তার ডিজিটাল অ্যাপ অল্ট বালাজিতে একটি ওয়েব শোতেও কাজ করেছেন। এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি , একতা কাপুর ইন্ডাস্ট্রিতে প্রায় ৩০ বছর পূর্ণ করেছেন এবং এখন তার বর্তমান বয়স ৪৬ বছর।  কিন্তু সে এখনো বিয়ে করেনি। তাকে প্রায়ই তার ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হয়। একবার এক সাক্ষাৎকারে বিয়ে না করার কারণ জানিয়েছিলেন একতা কাপুর। তিনি বলেন, সবচেয়ে বড় পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হলো এটি মানুষকে অধৈর্য করে তোলে। আমার মনে হয় আমার ধৈর্যের অনেক অভাব তাই আমি বিয়ে করিনি। আপনি যদি সুখী দাম্পত্য জীবন চান তবে আপনাকে ধৈর্য ধরতে হবে এবং প্রদর্শন করতে হবে। বাবা জিতেন্দ্রকে দেখেও তার বিয়ের উপর ভরসা উঠে গিয়েছে। যদিও সারোগেসির মাধ্যমে বিয়ে না করেও একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছেন একতা।

 

Related Articles

Back to top button