খবরবিনোদন

সময়টাই খারাপ যাচ্ছে, এক বিতর্ক থামতেই চুরির দায়ী অভিযুক্ত রূপঙ্কর বাগচী! দায়ের হল FIR

‘হু ইজ কেকে’? এই কথাগুলিই একেবারে বদলে দিয়েছে জনপ্রিয় গায়ক রূপঙ্কর বাগচির (Rupankar Bagchi) জীবন। মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়েছিল তাঁর সেই মন্তব্য। চরম কটাক্ষের শিকার হয়েছিলেন তিনি। এরপর গায়ক কেকে’র মৃত্যু সেই আগুনে আরও ঘি ঢেলে দিয়েছে। রূপঙ্করকে বয়কট করার ডাক দেওয়া থেকে শুরু করে একাধিক কাজ হারানো- এই ক’দিনে অনেককিছুই দেখেছেন তিনি। তবে এবার নতুন এক বিপাকে পড়েছেন গায়ক।

টলিউডের এই জনপ্রিয় গায়কের বিরুদ্ধে ‘গান চুরি’র অভিযোগ উঠেছে। কাজ হারিয়ে শেষে কিনা এইসব! সামাজিক মাধ্যমে ফের চরম কটাক্ষের শিকার হয়েছেন রূপঙ্কর। নেটিজেনদের একাংশ তো আবার এই বিষয়টি নিয়ে ঠাট্টা-তামাশাও শুরু করে দিয়েছেন।

Rupankar Bagchi song theft allegation

রূপঙ্করের বিরুদ্ধে ‘গান চুরি’র অভিযোগ এনেছেন মনোরমা ঘোষাল নামে এক গায়িকা। ইউটিউবে তাঁর একটি চ্যানেল রয়েছে। নাম, ‘মনোরমা মিউজিক’। বৃহস্পতিবার সেই গায়িকাই নিউটাউন থানায় রূপঙ্কর এবং সুরকার পার্থ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে গান চুরি করার অভিযোগ দায়ের করেছেন। নিউটাউন নিবাসী সেই গায়িকার অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তও শুরু করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্র মারফৎ জানা গিয়েছে, মনোরমা নিউটাউন থানায় রূপঙ্কর এবং পার্থর বিরুদ্ধে জেনারেল ডায়েরি তথা জিডি করেছেন। এই বিষয়ে সংবাদমাধ্যমকে গায়িকা বলেন, ‘একজন আমার গান চুরি করে গেয়েছেন। আমার সুরকার পার্থ বন্দ্যোপাধ্যায়ও এই বিষয়টির সঙ্গে জড়িত। আর যিনি গেয়েছেন, তিনি হলেন রূপঙ্কর বাগচি। এই গানটি ৬ মাস আগে আমার ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করা হয়েছিল। আমি নিজে গানটির ভিডিও তৈরি করে আপলোড করেছিলাম’।

Rupankar Bagchi song theft allegation

মনোরমার অভিযোগ, উল্লিখিত গানটির জন্য ২৮ হাজার টাকা পারিশ্রমিক নিয়েছিলেন পার্থ। কিন্তু তা সত্ত্বেও ফের একই গান রূপঙ্করের কাছে বিক্রি করে সে। গায়িকার প্রশ্ন, তাঁকে বিক্রি করা গান না জানিয়ে কীভাবে অন্য কাউকে বিক্রি করলেন পার্থ? শুধু তাই নয়, পার্থ নাকি ইউটিউব থেকে তাঁর গানটিও মুছে দিয়েছেন। এরপরই তিনি দেখেন রূপঙ্কর তাঁর  গান গেয়েছেন।

মনোরমার দাবি, গত ২৫ জুন রূপঙ্করকে ইউটিউবে আপলোড হওয়া তাঁর গানের লঙ্ক পাঠানো হয়েছিল। জানানো হয়েছিল, এই গান গাওয়া হয়ে গিয়েছে। তা সত্ত্বেও, কীভাবে গায়ক এই গান রিলিজ করেন? প্রশ্ন তুলেছেন অভিযোগকারী। অপরদিকে রূপঙ্কর বলছেন, তাঁকে না জানিয়ে পার্থ গানটি বিক্রি করেছেন। শুধু তাই নয়, তিন-চার মাস আগে তিনি গানটি রেকর্ড করেছিলেন। তবে এখন এই পরিস্থিতিতে পরে রূপঙ্কর নিজেও বুঝতে পারছেন না এবার কী করবেন!

Related Articles

Back to top button