বিনোদনসিনেমা

আন্তর্জাতিক মঞ্চে বাংলার জয়জয়কার! সর্বকালের সেরা সিনেমার খেতাব পেল সত্যজিৎ রায়ের এই ছবি

সিনেমা মানেই দর্শকদের বিনোদনের অন্যতম জনপ্রিয় একটি মাধ্যম। স্থান কাল পাত্র ভাষা ভেদে যার ভাষা বোঝে গোটা দুনিয়া। সে দিক দিয়ে দেখতে গেলে গোটা বিশ্বের দরবারে শিল্প সংস্কৃতির পিঠস্থান হিসেবে পরিচিত আমাদের দেশ ভারতবর্ষের রয়েছে এক আলাদা স্থান। ভারতবর্ষের সিনেমা তৈরির ইতিহাস বহু পুরনো। প্রায় শতাধিক বছরের বেশি সময় ধরে সিনেমা তৈরি হচ্ছে হিমালয়ের পাদদেশে অবস্থিত এই দেশে।

আর বাঙালি হিসাবে সব থেকে গর্বের বিষয় এই যে  ভারতবর্ষের সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় সিনেমা গুলিই তৈরি হয়েছে বাংলায়। যার শ্রষ্ঠা জনপ্রিয় সব  বাঙালি পরিচালক। সম্প্রতি ভারতীয় সিনেমার মুকুটে জুড়লো এক নতুন পালক। বিশ্বের দরবারে ফের একবার উজ্জ্বল হল বাংলার মুখ। International Federation of Film Critics India Chapter (FIPRESCI)-এর  বিচারে ভারতীয় সিনেমা (Indian Cinema) জগতের  সর্বকালের সেরা সিনেমা নির্বাচিত হয়েছে কিংবদন্তি পরিচালক সত্যজিৎ রায়ের (Satyajit Ray) কালজয়ী সৃষ্টি ‘পথের পাঁচালী’ (Pather Panchali)।

Satyajit Rays Pather PanchalisApu-AKA-Subir Banerjee latest pictures

প্রসঙ্গত শুক্রবারই সেরা ১০ টি ভারতীয় সিনেমার নাম প্রকাশে এনেছে FIPRESCI India -র ৩০ জন সদস্য। গোপনে তৈরী একটি পোলের মধ্যেই দিয়ে সেরার সেরা নির্বাচিত হয়েছে অস্কারজয়ী পরিচালকের তৈরী ষাটের দশকের এই সিনেমা। সমস্ত সিনেমা  বিশেষজ্ঞদের মতামত অনুযায়ী বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের লেখা পথের পাঁচালী উপন্যাসের অবলম্বনে তৈরি সত্যজিৎ রায়ের পথের পাঁচালী আজও  ভারতের সেরা সিনেমা গুলির তালিকায় রয়েছে সবার প্রথমে।

দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে আরেক বাঙালি পরিচালক ঋত্বিক ঘটকের সিনেমা ‘মেঘে ঢাকা তারা’। বাঙালি পরিচালকের  তৈরি এই ছবিও বেশ প্রশংসিত হয়েছেন বিশ্বের দরবারে। এরপরে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বাঙালি পরিচালক মৃণাল সেনের তৈরি সিনেমা ‘ভুবন সোম’। তবে সবচেয়ে আনন্দের বিষয় এই যে FIPRESCI-এর ঘোষণা অনুযায়ী প্রথম তিনটি সিনেমাই বাংলা (Bengali Cinema)। যা প্রত্যেক বাঙালির কাছেই অত্যন্ত গর্বের।

এরপরে চতুর্থ স্থানে রয়েছে আদুর গোপালকৃষ্ণণের মালায়ালাম সিনেমা ‘ইলিপ্পাথায়ম’,তারপরেই পঞ্চম স্থানে রয়েছে  গিরিশ কাসারাবল্লীর ‘ঘতশ্রদ্ধা’ এবং ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে এমএস সাথিউ-র ‘গরম হাওয়া’। তবে শুধু প্রথমই নয় সত্যজিৎ রায়ের আরো একটি সিনেমা ‘চারুলতা’ দখল করেছে সপ্তম স্থান। পরেই এরপরে অষ্টম স্থানে রয়েছে শ্যাম বেনে গেলে তৈরি সিনেমা ‘অংকুর’ এরপরেই রয়েছে গুরুদত্তের সিনেমা ‘পেয়াসা’ । তারপরে দশম স্থানে রয়েছে রয়েছে রমেশ সিপ্পির কালজয়ী সিনেমা ‘শোলে’।

Related Articles

Back to top button