গসিপবিনোদনসিনেমা

প্রতিভা থাকলেও দাম দেয় না বলিউড! জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা হয়েও হারিয়ে গেলেন অশোক শরফ

হিন্দি সিনেমা জগতের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা হলেন অশোক শরফ (Ashok Saraf)। তাঁর দুর্দান্ত কমিক সেন্স থেকে শুরু করে কমেডি কিংবা টাইমিং দিনের পর দিন মন জয় করে নিয়েছে লক্ষ লক্ষ দর্শকের। তবে শুধু হিন্দি সিনেমাই নয় মারাঠি সিনেমা (Marathi Film) জগতেও দারুন সফল এই অভিনেতা। এই কারণে মারাঠি সিনেমা জগতের সম্রাট অশোক বলা হয় অভিনেতাকে।

কিন্তু আশ্চর্যজনক ভাবে এখন আর বলিউডে কোনো অস্তিত্ব নেই অভিনেতার হঠাৎ করেই কেমন যেন হারিয়ে গিয়েছেন অন্যতম জনপ্রিয় এই কৌতুক অভিনেতা। তবে বর্তমানে শুধু অভিনয় থেকেই নয় লাইট, ক্যামেরা অ্যকশনের হাতছানি থেকেও নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন অশোক। নিজের দীর্ঘ অভিনয় জীবনে অশোক অন্তত ২৫০ টিরও বেশী মারাঠি সিনেমায় কাজ করেছেন যার মধ্যে ১০০ টি সিনেমাই দুর্দান্ত সফল।

১৯৪৭ সালের ৪জুন দক্ষিণ মুম্বাইতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন অভিনেতা। তার বাবার ছিল আমদানি রপ্তানির ব্যবসা। তাই তিনি চেয়েছিলেন তার ছেলে অশোক পড়াশোনা করে ভালো চাকরি করে জীবনে প্রতিষ্ঠা পাক। কিন্তু ভাগ্যের এমনই পরিহাস মাত্র ১৮ বছর বয়স থেকেই অভিনয় জীবনে পা রেখেছিলেন অশোক। ১৯৬৯ সাল থেকেই, অভিনেতার চলচ্চিত্র এবং টিভি জগতে কাজ শুরু হয়েছিল।

কেরিয়ারের শুরুতে তিনি ধুম ধাধাকা, গাম্মাত জাম্মাত এবং এক দাউ ভুতাছার মতো একাধিক মারাঠি ছবিতে অভিনয় করেছিলেন। অন্যদিকে, বলিউডেও (Bollywood) করণ অর্জুন এবং ইয়েস বসের মতো দুর্দান্ত সব ছবিতে অভিনয় করে দর্শকদের মন করে নিয়েছেন অভিনেতা।কিন্তু বর্তমানে চলচ্চিত্র জগতের পাশাপাশি সমস্ত লাইমলাইট থেকেও নিজেকে সম্পূর্ণ দূরে রেখেছেন অশোক। ২০১১ সালে, তাকে শেষ দেখা গিয়েছিল অজয় ​​দেবগনের সিনেমা সিংঘমে।

প্রসঙ্গত অনেকদিন আগে একবার এক ভয়ানক দুর্ঘটনার মুখে পড়েছিলেন অশোক, যার ফলে গলায় মারাত্মক আঘাত পেয়েছিলেন তিনি। যার ফলে সেসময় প্রায় ৬ মাস শয্যাশায়ী হয়েছিলেন অশোক। এছাড়াও, পরবর্তীতে ২০১২ সালে একবার পুনে এক্সপ্রেসে অল্পের জন্য বেঁচে গিয়েছিলেন অভিনেতা। ব্যক্তিগত জীবনের কথা বলতে গেলে অশোক শরফের স্ত্রী নিবেদিতা তার থেকে ১৮ বছরের ছোটো। তাদের একমাত্র ছেলের নাম অনিকেত।

Related Articles

Back to top button