বিনোদনভিডিওসিরিয়াল

সাধু পুরুষ সাত্যকির কেচ্ছা প্রকাশ্যে! বাড়ি বৌ থাকতে শ্লীলতাহানির অভিযোগে শ্রীঘরে টুকাই বাবু

উর্মি সাত্যকির লাভ স্টোরিতে নতুন টুইস্ট। সবে মাত্র বিয়ের ৫ মাস পেরোলো তাদের একসাথে পথ চলার। সেই উপলক্ষে উর্মির দাদু তার নাতনি ও নাতজামাইকে উপহার দেওয়ার জন‍্য একটি বাগানবাড়ি দেখতে দিয়েছেন। কিন্তু সেটা তো হতে দেবে না ঊর্মির লোভী মামণি। কারণ তিনি কিছুতেই সম্পত্তি হাতছাড়া করবেন না।

তাই উর্মি সাত্যকিকে আলাদা করতে নিজের স্বামীর সাথে মিলে এক জঘন্য ষড়যন্ত্র করে উর্মির মামনি। উর্মির চোখে সাত্যকিকে ছোটো করতে তার নামে শ্লীলতাহানির মতো জঘন্য ষড়যন্ত্র করে মামনি। ইতিমধ্যেই সিরিয়ালে দেখা গেছে ঊর্মির কাকা আগে থেকেই এক পেশাদার মহিলাকে টাকার লোভ দেখিয়ে সাত‍্যকির ট‍্যাক্সিতে তুলে দেন।

এরপর সে নিজেই নিজের পোশাক ছিঁড়ে চিৎকার করে নির্যাতিতা সাজার অভিনয় করে। এরপর ওই মহিলার মিথ‍্যে অভিযোগ রাস্তার লোক জড়ো হয়ে গণপিটুনি দেয় সাত‍্যকিকে। এরপর থেকেই একটা ট্রমার মধ্যে চলে যায় সাত্যকি। বাড়িতে এসে কাওকে কিছু বলেনি। এমনকি উর্মির কাছ থেকেও গোটা ঘটনাটা লুকিয়ে রাখে।

এরপর ওই মহিলার কাছে শ্লীলতাহানির অভিযোগ পেয়ে সাত্যকির বাড়ি চলে আসে পুলিশ। আর পুলিশ দেখেই ফের ট্রমার মধ্যে চলে যায় সাত্যকি। অন্যদিকে পুলিশের কাছে সাত্যকির বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ শুনে উর্মিও তাকে অবিশ্বাস করতে শুরু করে। এমন দুর্দিনে নিজের স্ত্রীও মুখ ফিরিয়ে নেওয়ায় মাথা তুলে দাঁড়াতে পারছে না সাত্যকি।


এসবের মধ্যে থানায় গিয়ে ভুয়ো নির্যাতিতা ওই মহিলা উর্মির সামনে আরও বেশি করে নাটক করতে থাকে। আর অফিসার কে জানায় সাত্যকি যদি সবার সামনে তার কাছে ক্ষমা। ক্ষমা চেয়ে নেয় তাহলে সে মামলা তুলে নেবে। একথা শুনেই বেরিয়ে যায় উর্মি। সে জানায় তার এসব ভালো লাগছে না। সে দাদুর কাছে চলে যাবে। তাকে বোঝানোর চেষ্টা করে সাত্যকির মা। কিন্তু সেসব তোয়াক্কা না করেই চলে যায় উর্মি।

Related Articles

Back to top button