বিনোদনভিডিওসিরিয়াল

বৌভাতে তেল-লঙ্কাগুঁড়ো দিয়ে পায়েস রান্না! উর্মির রান্নার বহর দেখে চোখ কপালে উঠেছে দর্শকদের

বাংলা সিরিয়ালের মধ্যে কিছু সিরিয়াল রয়েছে যেগুলো দর্শকদের কাছে বেশ জনপ্রিয়। আসলে সিরিয়ালের কাহিনী আর কাহিনীর চরিত্রগুলো ভালো লেগে গেলেই দর্শকেরা সিরিয়ালের জন্য অপেক্ষায় থাকেন। এমনই একটি সিরিয়াল হল জি বাংলার এই পথ যদি না শেষ হয় (Ei Path Jodi Na Sesh Hoi) সিরিয়ালটি। অল্প দিনের মধ্যেই এই ধারাবাহিক দর্শকদের মন জিতে নিয়েছে। সিরিয়ালের বিশাল বড় লোক পরিবারের এক খামখেয়ালি অবুঝ মেয়ের সাথে গোমড়ামুখো মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলের কাহিনী দেখানো হয়েছে।

সিরিয়ালে বড়লোকের মেয়ে উর্মির চরিত্রে আছেন অভিনেত্রী অন্বেষা হাজরা। আর অন্যদিকে গোমড়ামুখো সাত্যকির চরিত্রে রয়েছে অভিনেতা ঋত্বিক মুখার্জী। দুজনের পর্দার কেমিস্ট্রি একেবারে জমে উঠেছে। নাচ, গান, আবৃত্তি, খেলাধুলা সমস্ত কিছুই শিখেছে উর্মি কিন্তু একটু একটু। এরপর তার ইচ্ছা গাড়ি চালানো শেখা। আর এই ট্যাক্সি চালানো শিখতে গিয়েই গল্পের নায়ক অর্থাৎ মধ্যবিত্ত পরিবারের ছাপোষা ছেলে সাত্যকির সাথে পরিচয় উর্মির।

Annwesha hazra urmi অন্বেষা হাজরা উর্মি

সাধের হলুদ ট্যাক্সি চালানো ওরা শেখ হয়েছে তা বোঝা না গেলেও ইতিমধ্যেই সাত পাকে বাধা পড়েছে দুজনেই। বড়লোক বাড়ির মেয়ে হলেও অহংকার নেই উর্মির মধ্যে। তাছাড়া, বাইরের জগৎ সম্পর্কেও খুবই কম ধারণে রয়েছে তাঁর। তাই উর্মিকে বাড়ির সকলের দারুন পছন্দ। তবে সাত্যকি একপ্রকার রাজি না হয়েই বিয়ে করেছে উর্মিকে। এখন তাদের  প্রেমকাহিনী কিভাবে পরিণতি পাবে এটাই দেখার বিষয়।

এই পথ যদি না শেষ হয় Ei Path Jodi Na Sesh Hoi

আগেই বলেছি দুজনের বিয়ে মিটেছে ইতিমধ্যেই। এবার বিয়ের পর বৌভাতের পালা। বৌভাতের দিন নতুন বৌ নিজের হাতে পায়েস রান্না করে খাওয়ানোর নিয়ম রয়েছে। সিরিয়ালেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। বিয়ের পরের দিন বৌভাতে রান্নাঘরে হাজির হয়েছে উর্মি। পায়েস বানাতে হবে ভেবেই বেশ উত্তেজিত হয়ে পড়েছি উর্মি। পায়েস রান্নায় দুধের মধ্যে চাল থাকে এটাই জানে সে, যদিও আদৌ কিভাবে যে পায়েস বানাতে হয় তার ধারণাই নেই উর্মির।

এই পথ যদি না শেষ হয় Ei Path Jodi Na Sesh Hoi

রান্নাঘরে উর্মিকে দেখেই ছোট ঠাম্মি বুঝতে পেরেছে যে রান্না তার কাজ নয়। তাই উর্মিকে সাহায্য করতে এগিয়ে এসেছে ছোট ঠাম্মি। তবে পায়েস রান্নার করতে গিয়ে যে কান্ড কারখানা করছিল উর্মি তা দেখে চোখ কপালে ওঠার জোগাড় ঠাম্মির। একবার তেলের কৌটো ধরে তো একবার লংকার গুঁড়ো। শেষমেশ ঠাম্মি নিয়েই পায়েস রান্না করে দে উর্মির জন্য।

Related Articles

Back to top button