রেসিপি

 দুপুরে হোক বা রাতে খাবার শেষে হোক মিষ্টিমুখ, রইল বাড়িতে সুস্বাদু গাজরের হালুয়া তৈরির রেসিপি

কথায় আছে শুভ কাজের শুরুতে মুখ মিষ্টি করতে হয়। আর নিয়মমেনে অনেকেই সেটা করেন। আর অনুষ্ঠান বাড়ির শেষ পাতেও মিষ্টি থাকবেই। নাহলে খাওয়াটা কেমন যেন অসম্পূর্ন থেকে যায়। এদিকে রাতের খাবারে বা এমনি সময়েও মিষ্টি খেতে দারুন লাগে। আর সেই মিষ্টি যদি হয় বাড়িতে বানানো তাহলে তো আর কথাই নেই! আজ আপনাদের জন্য বাড়িতেই দুর্দান্ত স্বাদের গাজরের হালুয়া তৈরির রেসিপি (Gajar Ka Halwa Recipe) নিয়ে হাজির হয়েছি।

শীতকাল মানেই নানাধরণের সবজি বাজারে দেখতে পাওয়া যায়। আর সেই সমস্ত সবজির মধ্যে খুবই কেমন হল গাজর। এই গাজরে উপযুক্ত পরিমাণ ফাইবার থেকে ভিটামিন এ এরকম একাধিক পুষ্টিগুণ রয়েছে। আর এই গাজর দিয়েই দুর্দান্ত স্বাদের হালুয়া তৈরী করে নেওয়া যায় যেটা ছোট থেকে বড় সকলেরই প্রিয়। তাহলে আর দেরি কিসের রেসিপি দেখে ঝটপট বানিয়ে ফেলুন গাজরের হালুয়া।

গাজরের হালুয়া তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণঃ

  • গাজর
  • ঘন দুধ
  • ড্রাইফুট কুচি, কাজুবাদাম, কিশমিশ
  • চিনি, ১-২ চামচ ঘি (চাইলে বাটার ব্যবহার করতে পারেন)
  • এলাচ গুঁড়ো

গাজরের হালুয়া তৈরির পদ্ধতিঃ 

  • প্রথমে বাজার থেকে আনা গাজর ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। এরপর সেগুলোকে ঝুরো ঝুরো করে কুরিয়ে নিতে হবে।
  • এরপর একটা পাত্রে ঘন দুধ গরম করতে হবে।

  • গরম দুধের মধ্যে কুরিয়ে রাখা গাজর মিশিয়ে ফোটাতে থাকতে হবে। যতক্ষণ না দুধ অর্ধেক হয়ে যাচ্ছে ততক্ষন ফোটাতে হবে।
  • দুধ গাজর ফুটতে শুরু করলে আঁচ কমিয়ে নিতে হবে আর ২ চামচ ও এলাচ গুঁড়ো মিশিয়ে দিয়ে নাড়তে থাকতে হবে। (গাজরের হালুয়া তৈরির সময় নাড়তেই থাকতে হবে, নাহলে নিচের অংশ পুড়ে যেতে পারে।)

  • যখন ৮০ শতাংশ বা তারও বেশি দুধ কমে গিয়ে গাজরের হালুয়া প্রায় তৈরী তখন পরিমাণ মত কাজুবাদাম কিশমিশ ছড়িয়ে দিতে হালকা করে নেড়ে মিশিয়ে দিতে হবে।

  • ব্যাস গাজরের হালুয়া তৈরী, তবে এটা গরম খাবার থেকে ঠান্ডা করে খেলে আরও সুস্বাদু লাগে তাই ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করে খেলেই দারুন সুস্বাদু হবে।

Related Articles

Back to top button