বিনোদনভিডিওসিরিয়াল

কুমুদিনীকে বাঁচিয়েছিলেন ভবতারিণী! এবার যুগলে মিলে আশীর্বাদ নিল রামকৃষ্ণ আর মা সারদার

বাঙালির বিনোদনের ডেলি ডোজ মানেই মেগা সিরিয়াল। তাই পাড়ায় পাড়ায় সন্ধ্যা নামতেই সমস্ত কাজ সেরে টিভির রিমোট নিয়ে সবাই মিলে বসে পড়েন টিভির সামনে। জি বাংলার দর্শকদের কাছে বহুল জনপ্রিয় এমনই একটি ধারাবাহিক হল ‘করুণাময়ী রানি রাসমণি'(Karunamoyi Rani Rashmoni)। রাণিমার মৃত্যুর পর ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে ‘রাসমণি উত্তর পর্ব’। এই পর্বে রানিমার মৃত্যুর পর প্রয়াত হয়েছেন সকলের প্রিয় মথুরবাবুও।

এই নতুন পর্বে একাধিক পুরনো চরিত্রদের পাশাপাশি আগমন ঘটেছে বেশ কিছু নতুন চরিত্র। তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন জগদম্বা এবং মথুরবাবুর সন্তান দ্বারিকা (Dwarika) এবং তাঁর স্ত্রী কুমুদিনী (Kumudini)। সিরিয়ালে দ্বারিকার চরিত্রে অভিনয় করছেন টেলিভিশনের অন্যতম জনপ্রিয় মুখ সুমন দে আর কুমুদিনীর চরিত্রে রয়েছেন ছোট পর্দার সৌদামিনী খ্যাত অভিনেত্রী সুস্মিলি আচার্য। কিন্তু নানা ঘটনাক্রমে রানির পরিবারের লোকজন এমনকি দ্বারিকা এখনও জেনে উঠতে পারেননি কুমুদিনীই তাঁর বিয়ে করা স্ত্রী।

Rashmoni

অন্যদিকে মা ভবতারিণীর কৃপায় বেশ কিছুদিন ধরেই দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে ঠাঁই হয়েছে কুমুদিনীর। কিন্তু এইভাবে অচেনা, অজানা একটা মেয়ের দায়ভার নেওয়ার বিরোধিতা করতে রাণিমার সেজ মেয়ে পদ্ম এবং তাঁর পরিবার। তাই একপ্রকার ষড়যন্ত্র করেই তারা এক বয়স্ক, বিবাহিত জমিদারের সাথে কুমুদিনীর বিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন তাঁরা। সেই চক্রান্তের কথা জানতে পেরে দ্বারিকা কুমুদিনীকে উদ্ধার করে আনতে যায়।

এরপর সেখানেই জমিদারের সাথে বিয়ে ভেস্তে দিয়ে কুমুদিনীকে নিজেই বিয়ে করে নেয় দ্বারিকা। এরপর তাকে আগুনে পুড়ে যাওয়ার হাত রক্ষা করে রাতের অন্ধকারে জঙ্গলের পথ দিয়ে পালিয়ে নিয়ে আসছিল দ্বারিকা। কিন্তু সে এতটাই শক্তিহীন হয়ে পড়ে যে উঠে দাঁড়ানোর ক্ষমতা টুকুও হারিয়ে ফেলে। সেসময় মানুষ রূপে কুমুদিনীর সামনে আসেন স্বয়ং মা ভবতারিণী। তিনিই কুমুদিনীর কপালে প্রসাদি ছুঁইয়ে দিয়ে তাকে সারিয়ে তোলেন।

সম্প্রতি চ্যানেলের তরফে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে বিয়ের পর দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে মা সারদা এবং রামকৃষ্ণের আশীর্বাদ নিতে যায় দ্বারিকা আর কুমুদিনী। এরপর দুজনেই মা সারদা আর রামকৃষ্ণের পা ছুঁয়ে আশীর্বাদ নেয়। আর তারাও নব দম্পতিকে প্রাণভরে আশীর্বাদ করে।

Related Articles

Back to top button