গসিপবিনোদন

ঝরঝরে বাংলায় কবিতা বলতেন দিলীপ দা! স্মৃতি হাঁতড়ে আবেগে ভাসলেন সাবিত্রী চ্যাটার্জি

বলিউডের (Bollywood) রুপোলি পর্দায় ‘ট্র্যাজেডি কিং’ রূপে ধরা দিলেও তাঁর ব্যক্তিগত জীবন ছিল বেশ রঙচঙে। ব্যবসায়ী হতে গিয়ে হঠাৎই নায়ক বনে যাওয়া দিলীপ কুমারের (Dilip Kumar) মৃত্যু হয়েছে মুম্বইয়ের (Mumbai) হিন্দুজা হাসপাতালে (Hinduja Hospital)। তাঁর জীবনাবসানের সঙ্গেই শেষ হয়ে গেল প্রায় ছয় দশকের এক যুগ।

৯৮ বছর বয়সে মারা গেলেন দিলীপ কুমার। আর প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই তাঁকে নিয়ে স্মৃতিচারণে লিপ্ত হয়েছেন একের পর এক অভিনেতা-অভিনেত্রী। সমগ্র বলিউডের শ্রদ্ধাজ্ঞাপনে স্নিগ্ধ হল তাঁর শেষযাত্রা। বলিউডের ‘দেবদাস’ (Devdas) বিদায় নিলেন চিরতরে।

মৃত্যুদিনে অভিনেতাকে নিয়ে স্মৃতিকথা উদ্ধৃতি করলেন টলিউডের (Tollywood) খ্যাতনামা অভিনেত্রী সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায় (Sabitri Chattopadhyay)। এক সংবাদমাধ্যমের সাক্ষাৎকারে সরাসরি সাবিত্রী বলেন, “স্কুলে পড়ার সময়ে দিলীপ কুমারের ছবি প্রথম দেখি। ততদিনে উনি বিখ্যাত নায়ক। সে সময়ে ওনার কয়েকটা ছবিও আমি দেখেছিলাম!”

দিলীপ কুমার Dilip Kumar

স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বর্ষীয়ান অভিনেত্রী আরও জানান, “ওঁকে তখন খুবই ভালো লাগত, যদিও ওনার নামটা আমার জানা ছিল না। আসলে তখন আমি সিনেমা দেখার অনুমতি পেতাম না।” তৎকালীন বম্বেয় দিলীপ কুমারের সঙ্গে দেখা হওয়ার ঘটনাও তুলে ধরেন সাবিত্রী।

দিলীপ কুমার Dilip Kumar

দিলীপ কুমারকে নিয়ে বলতে গিয়ে ভাবুক হয়ে পড়েন অভিনেত্রী। একদা পর্দাকাঁপানো টলি-অভিনেত্রীর মতে, “ওনার মতো বিনয়ী ও নম্রভদ্র মানুষ খুব কমই দেখেছি। বাংলা কবিতা যে কী সুন্দর পড়তেন, তা আমি নিজে কানে শুনেছি। মানুষের বয়স বাড়ে এবং একদিন হয়তো মানুষ এই দুনিয়া ছেড়ে চলে যায়। আমরাও চলে যাব একদিন। তবে দিলীপ কুমারের চলে যাওয়াটা সত্যি খুব কষ্টের, খুব বেদনার।”

Related Articles

Back to top button