একসময় দেউলিয়া হয়ে গিয়েছিলেন অমিতাভ বচ্চন, ঋণের বোঝা, তখন সাহায্য করতে এসেছিলেন ধীরুভাই আম্বানি


অমিতাভ বচ্চনকে (Amitabh Bachchan) বলিউডের (Bollywood) বিগবি বলে মনে করা হয়।বাইরে থেকে অ্যাংরি ম্যান মনে হলেও খোদ অমিতাভ বচ্চনও বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েছেন যেখানে তিনি চোখের জল থামাতে পারেননি। এমনই একটি ইভেন্টে অমিতাভ বচ্চন মুকেশ আম্বানি এবং নীতা আম্বানির সামনে মুকেশ আম্বানির পিতা ধীরুভাই আম্বানির একটি গল্প বর্ণনা করতে গিয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েছিলেন, চোখেও জল চলে এসেছিল বিগবির।

অমিতাভ বচ্চন দেশের সবচেয়ে ধনী পরিবার আম্বানি পরিবারের বেশ ঘনিষ্ঠ। ধীরুভাই আম্বানি থেকে মুকেশ এবং অনিল আম্বানি সবার সঙ্গেই বচ্চন পরিবারের বন্ধুত্ব রয়েছে। অমিতাভ অম্বানি পরিবারের প্রায় সকল ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানে জড়িত ছিলেন। অমিতাভ রিলায়েন্সের বেশ কয়েকটি পাবলিক অনুষ্ঠানেও অংশ নিয়েছেন।

রিলায়েন্স আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে গিয়েই আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলেন অমিতাভ। তিনি বলেছিলেন, একসময় সর্বস্ব খুইয়ে দেউলিয়া হয়ে পড়েছিলেন অমিতাভ৷ দেনার দায়ে ঋণ শোধ করতে করতে এক প্রকার নিঃস্ব হয়ে গিয়েছিলেন বিগবি। কাজও আসছিল না হাতে।

এমতাবস্থায় ধীরুভাই আম্বানি তার ছোট ছেলে অনিল আম্বানির হাত দিয়ে অমিতাভের জন্য টাকা পাঠিয়েছিলেন। বিগবি জানান, ধীরুভাই যে পরিমাণ অর্থ পাঠিয়েছিলেন তাতে অমিতাভের সমস্যা হেসে খেলেই মিটে যেত। কিন্তু সিনিয়র বচ্চন সেই সময় সেই টাকা নেন নি। ভগবানের উপর ভরসা রেখেছিলেন। পরবর্তীতে কিছু দিনের মাথাতেই অবস্থা স্বাভাবিক হয়ে গিয়েছিল। তবে খারাপ সময়ে ধীরুভাইয়ের উপকার কোনোদিন ভোলেননি বিগবি।

আরেকটি ঘটনা বর্ণনা করে অমিতাভ বলেন একবার একটি ডিনার পার্টিতে ধীরুভাই তাকে নিজের টেবিলে ডেকে বসিয়ে বন্ধুদের বলেছিলেন, “এই ছেলেটি সব দিক দিয়ে ভেঙে পড়েছিল, নিজের চেষ্টাতেই আবার উঠে দাঁড়িয়েছে আমি ওকে শ্রদ্ধা করি”। কথাগুলি বলতে গিয়ে অমিতাভ এবং মুকেশ আম্বানির চোখেও জোল দেখা যায়।