বিনোদন

হাতে কাজ নেই! এতই খারাপ অবস্থা যে বিড়ির বিজ্ঞাপন করছেন হেমা ধর্মেন্দ্র, ছি ছি রব নেটপাড়ায়

বলিউডের জনপ্রিয় পাওয়ার কাপলদের মধ্যে অন্যতম হেমা মালিনী এবং ধর্মেন্দ্রর জুটি। সম্পর্কের চার দশক পেরিয়ে গেলেও আজও এভারগ্রীন তাঁদের দাম্পত্যজীবন। রুপোলি পর্দা থেকে শুরু করে বাস্তবেও একেবারে সুপারহিট তাদের জুটি। আজকালকার আধুনিক ঠুনকো সম্পর্কের যুগে যেখানে কথায় কথায় ডিভোর্স হয়। সেখানে দীর্ঘ ৪১ বছর ধরে একসাথে স্বামী স্ত্রী হিসাবে রয়েছেন ধর্মেন্দ্র ও হেমা মালিনী।

আলাদা ভাবে বলতে গেলে ধর্মেন্দ্র এবং হেমা দুজনেই বলিউডের সুপারস্টার তারকা৷ একসময় তাদের ছবি মানেই হলে উপচে পড়ত দর্শক। আর সুপারস্টার তারকাদের দিয়ে বিজ্ঞাপন করানোর চল এযুগেও যেমন রয়েছে সেযুগেও ছিল। কখনোও বারুদজাত বা তামাকজাত বিভিন্ন দ্রব্যের উপরে ব্যবহার করা হত নায়ক নায়িকাদের মুখ।

সম্প্রতি এমনই একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। যা নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক। ভাইরাল ছবিতে দেখা যাচ্ছে বিড়ির প্যাকেটে ধর্মেন্দ্র ও হেমার ছবি। বহু বছর আগে একটি বিড়ির কোম্পানি ধর্মেন্দ্র এবং হেমার ছবি দিয়ে প্রচার করে বিড়ি বেচছিলেন। এই ছবি উদ্ধার করে, প্রশান্ত সাহু (Prashanta Sahu) নামে একজন নেটিজেন ট্যুইটারে লিখেছেন,এটা সেইসময় যখন সুপারস্টারের বিড়ির বিজ্ঞাপন দিতেন।

এই ছবি শেয়ার করে প্রশান্ত সকলকে মজার ক্যাপশন দিতে অনুরোধ করেছেন, আর এই ছবি ভাইরাল হতেই ট্যুইট পোস্টটি চোখে পড়েছে খোদ ধর্মেন্দ্রর। চাঁচাছোলা ভাষায় ধর্মেন্দ্র উত্তর দেন, “সেই সময় কারোর অনুমতি ছাড়াই ছবি ব্যবহার করা হত। ” তবে সুযোগের সদ্ব্যবহার যাঁরা করেছেন, তাঁদের মঙ্গল কামনা করেছেন ধর্মেন্দ্র। প্রশান্তকেও তিনি শুভকামনা জানিয়েছেন। পাশাপাশি স্বয়ং ধর্মেন্দ্রর উত্তর পেয়ে ট্যুইটকর্তাও আপ্লুত হন, এবং তিনি এই ট্যুইটটি না জেনেই করেছিলেন বলে ক্ষমাও চেয়ে নেন।

Related Articles

Back to top button