খবরবিনোদনসিরিয়াল

নোয়াকে মাথায় তুলেই শেষ হচ্ছে দেশের মাটি! অন্তিমক্ষণে দাঁড়িয়েও নেটিজেনদের ট্রোলের মুখে শ্রুতি

কিছু সিরিয়াল আর পাঁচটা একঘেয়ে কূটকচালি গল্প না বলে দারুন একটা গল্প বলে। যে গল্প দর্শকদের মনে গেঁথে যাবার মত, এমনই একটি সিরিয়াল হল ষ্টার জলসার দেশের মাটি (Desher Mati)। নোয়া-কিয়ান (Noa-Kian) থেকে সিরিয়ালের প্রতিটি চরিত্র যেন দর্শকদের খুব কাছের হয়ে গিয়েছিল। বিশেষত রাজা মাম্পি জুটির জনপ্রিয়তা আকাশ ছুঁয়েছে সেটা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। কিন্তু দর্শকদের প্রিয় এই সিরিয়ালটিও শেষের পথে।

মূলকাহিনী নোয়াকে নিয়ে তৈরী হলেও গল্পে রাজা-মাম্পির (Raja-Mampi) প্রেমকাহিনী যেন মুগ্ধ করেছিল দর্শকদের। তাই ‘দেশের মাটি’কে বিদায় জানাতে চাইছেন না কেউই। তবু চ্যানেলের সিদ্ধান্তে বন্ধ হচ্ছে সিরিয়াল। আর সিরিয়ালের শেষ ক্ষণে এসেও দর্শকদের ক্ষোভ গিয়ে পড়ল সেই নোয়া অভিনেত্রীর ঘাড়েই। দেশের মাটি থেকে রাম্পি ফ্যানেরা সোশ্যাল মিডিয়াতে ফ্যানপেজ বানিয়েছেন। সেখানেই দেখা গেল নোয়াকে নিয়ে তুমুল সমালোচনা।

এই নেটিজেন দেশের মাটির একটি ছবি শেয়ার করে লিখেছেন, ‘এখনো মাম্পির প্রশংসা কেউ করলে নোয়া রানীর মুখ ভার হয়, নিজের দোষে নিজের চাকরি হারিয়েছে, এখন আবার দাদুর সুপারিশে চাকরিতে ঢুকবে। অথচ সেই চ্যানেলের মুখ। শেষ সপ্তাহেও তাকেই প্রমোট করা হচ্ছে “নোয়া কি পারবে” লিখে…. এই ভুল গুলোই সিরিয়াল টাকে শেষের দিকে এগিয়ে নিয়ে গেলো। এখানে চরিত্রগুলোর মধ্যে সমীকরণ ক্লিয়ার নয়। অনেক জটিলতা এখনো আছে। এমন আচমকা বন্ধ করার মানে কি?’

নোয়া চরিত্রে অভিনয়ে করছেন অভিনেত্রী শ্রুতি দাস। খুব বেশি দিন হয়নি অভিনেত্রীর ইন্ডাস্ট্রিতে তবে এর আগেও একটি সিরিয়াল করেছেন শ্রুতি। ত্রিনয়নী সিরিয়ালেও মূল চরিত্রে দেখা গিয়েছিল তাকে। কিন্তু দর্শকদের থেকে বারেবারে সমালোচনা আর কটাক্ষের সম্মুখীন হতে হয়েছে অভিনেত্রীকে। দেশের মাটি সিরিয়ালেও প্রথম থেকেই দর্শকেরা অপছন্দ করতে নোয়াকে।

এরপর সিরিয়ালে মাম্পির আগমন হয়। মাম্পি চরিত্রে অভিনয় করেন রুকমা রায় আর রাজার চরিত্রে রাহুল অরুণোদয় ব্যানার্জী। এই দুই চরিত্রের প্রেমকাহিনী যেন সিরিয়ালের মূল আকর্ষণ হয়ে দাঁড়ায়। কিন্তু নোয়াকে নাকি বারবার ভালো দেখানোর চেষ্টা করে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ এমনটাই অভিযোগ দর্শকের। অনেকের মন্তব্য অনেক কিছুই দেখানো বাকি ছিল তবু শেষ করে দেওয়া হচ্ছে সিরিয়াল। সাথে সিরিয়াল বন্ধ হয়ে যাবার জন্য নোয়াকেই দোষী করছেন দর্শকেরা।

প্রসঙ্গত, অভিনেত্রী শ্রুতির মতে সিরিয়াল চালু রাখার সিদ্ধান্ত একেবারেই চ্যানেল কর্তৃপক্ষের। প্রযোজনা সংস্থার সাথে  ব্যক্তিগতভাবে যুক্ত নন তিনি। যা নির্দেশ দেওয়া হয় তিনি সেটাই করেন। তবু দর্শকদের মনে আক্ষেপ থেকেই যাচ্ছে যে অনেক কিছুই তো দেখানো বাকি ছিল! ইতিমধ্যেই স্টার জালসার সোশ্যাল মিডিয়া পেজে এই নিয়ে একাধিক মন্তব্য চোখে  পড়েছে।

Related Articles

Back to top button