গসিপবিনোদন

টলিউডেও নেপোটিজম! অঞ্জন চৌধুরীর মেয়ে বলেই কাজ পেয়েছি, নিজেই স্বীকার করলেন চুমকী চৌধুরী

গতবছর ১৪ ই জুন বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে বারংবার উঠে এসেছে নেপোটিজম (Nepotism) বা স্বজনপোষণের প্রসঙ্গ। যেখানে খোলসা হয়েছে স্টারকিডদের ইন্ডাস্ট্রিতে রাজ করার ইতিবৃত্ত। স্বাধীন অভিনেতা অভিনেত্রীদের কোণঠাসা করার ঘটনাও উঠে এসেছে। প্রতিবাদে সরব হয়েছেন অনেকেই। ইতিমধ্যেই এই তালিকায় নাম জড়িয়েছে মহেশ ভাটের কন্যা আলিয়া ভাটের , সইফ কন্যা সারা আলী খানের , চ্যাংকি পান্ডে কন্যা অনন্য পান্ডেরও। কথাতেই আছে বলিউডে গোগফাদার না থাকলে মেলেনা কাজ।

বলিউড ছেড়ে এবার টলিউডেও উঠে এলো নেপোটিজমের প্রসঙ্গ। খোলসা করলেন নব্বইয়ের দশকের বাংলার এক তাবড় অভিনেত্রী চুমকি চৌধুরী স্বয়ং। সেই সময়ে অভিনয় জগতের একজন জনপ্রিয় পরিচালক ছিলেন অঞ্জন চৌধুরী। আর তারই দুই কন্যা চুমকি এবং রিনা চৌধুরী। অঞ্জন কন্যা চুমকি এবং রিনা উভয়েই একসময় লাগাতার টলিউড কাঁপিয়েছেন।

দীর্ঘদিন পর্দায় দেখা মেলেনি অভিনেত্রী চুমকি চৌধুরীর। সম্প্রতি জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো রচনা ব্যানার্জির সঞ্চালনায় দিদি নং ওয়ানের মঞ্চে উপস্তিত হয়েছিলেন অভিনেত্রী। এদিন রিয়েলিটি শো-তে এসে মন খুলে কথা বললেন চুমকি চৌধুরী। জানালেন অভিনয় জগতে আসা তার লক্ষ্য কোনোকালেই ছিলনা, কেবলমাত্র বাবার কথাতেই অভিনয়ের সঙ্গে যুক্ত হয়েছিলেন তিনি।

 

নেপোটিজম নিয়ে যখন চারিদিকে হইচই পড়ে গিয়েছে, তখন অভিনেত্রী নিজেই টেলিভিশনের পর্দায় অকপটে স্বীকার করলেন, অঞ্জন চৌধুরীর মেয়ে বলেই ছবিতে কাজ করার সুযোগ পেয়েছিলেন, না হলে একটা ছবি করার পর লোকে তাঁকে অভিনয় জগত ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়ার দরজা দেখিয়ে দিত। তিনি জানান, তার স্বপ্ন ছিল শিক্ষিকা হওয়ার অথবা আর ৫ টা মেয়ের মতো সুখে সংসার করার। কারণ ঘরের কাজ, রান্না বান্না, সেলাই, ঘর সাজানো এসবই তার প্রিয় কাজ।

Related Articles

Back to top button