ভাইরাল

আনলিমিটেড টাকা খরচের সুযোগ! শুধুমাত্র শপিং করেই ১১ মাসে ১৮ কোটি টাকা উড়িয়ে দিলেন এই তরুণী

আমরা প্রত্যেকেই জানি, টাকাপয়সা লেনদেনের ক্ষেত্রে আমাদের একটু বেশিই সতর্ক থাকতে হয়। কারণ লেনদেনের ক্ষেত্রে যদি একটু কিছু ভুল হয় তাহলে খোয়াতে হতে পারে নিজের টাকা। কথাটি কিন্তু ব্যাঙ্কের ক্ষেত্রেও  প্রযোজ্য। কারণ ব্যাঙ্ক (Bank) কর্তৃপক্ষকে কিন্তু একটি ভুলের জন্য অনেক বড় মাশুল গুনতে হতে পারে। সম্প্রতি যেমন অস্ট্রেলিয়ার একটি ব্যাঙ্কের সঙ্গে হয়েছে।

সম্প্রতি একটি ব্যাঙ্কের ভুলের কারণে একজন তরুণীর অ্যাকাউন্টে ১৮ কোটি টাকা চলে যায়। আর সবচেয়ে অবাক করার মতো বিষয় এটি যে মেয়েটি সম্পূর্ণ টাকা নিজের শপিংয়ের পিছনে উড়িয়ে দেন।  আর একথা শোনার পরই চোখ কপালে উঠেছে নেটিজেনদের।

Christine Jiaxin Lee

আসলে ব্যাঙ্ক ভুল করে সেই তরুণীর অ্যাকাউন্টে আনলিমিটেড ওভারড্রাফটের (Unlimited overdraft) সুবিধা দিয়েছিল। আর ব্যস, তরুণী সেই সুযোগে সম্পূর্ণ টাকা খরচ করে দেন। জানিয়ে রাখি, আনলিমিটেড ওভারড্রাফট এমন একটি সুবিধা যেটির মাধ্যমে একজন অ্যাকাউন্ট হোল্ডার ততক্ষণ পর্যন্ত নিজের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা বের করতে পারেন, যতক্ষণ পর্যন্ত সেখানে টাকা শেষ না হচ্ছে। ব্যাঙ্কের কথায় একে ‘শর্ট টার্ম লোন’ও বলা হয়।

বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে, অস্ট্রেলিয়ার একটি ব্যাঙ্কে ঘটেছে এই ঘটনা। সংশ্লিষ্ট তরুণীর নাম ক্রিস্টিন জিয়াক্সিন লি (Christine Jiaxin Lee)। ক্রিস্টিনকে ভুল করে অস্ট্রেলিয়ার সংশ্লিষ্ট ব্যাঙ্ক আনলিমিটেড ওভারড্রাফটের সুবিধা দিয়ে দেয়। আর  ব্যস, সঙ্গে সঙ্গে পার্টি, ঘুরতে গিয়ে, শপিং করে সেই টাকা উড়িয়ে দেন তিনি।

Christine Jiaxin Lee

ব্যাঙ্কের দেওয়া টাকায় লাক্সারি জীবনযাপন করা শুরু করেছিলেন ক্রিস্টিন। শুধুমাত্র জামাকাপড়ই নয়, ১৮ কোটি টাকা দিয়ে তিনি কিনে ফেলেছিলেন একটি ফ্ল্যাটও। বাকি আড়াই লাখ টাকা নিজের দ্বিতীয় অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার করে দেন ক্রিস্টিন।

ব্যাঙ্কের টাকা এভাবে দু’হাতে উড়িয়ে দেওয়ার জন্য অবশ্য ক্রিস্টিনের শাস্তিও হয়েছে। জানা গিয়েছে, মাত্র ১১ মাসে ক্রিস্টিনের ১৮ কোটি টাকা উড়িয়ে দেওয়ার খবর জানতে পারা মাত্রই ব্যাঙ্ক তাঁর বিরুদ্ধে কেস করে দেয়। সেই কারণে জেলযাত্রাও হয় ক্রিস্টিনের। তবে জানা গিয়েছে এই মামলা নাকি যখন কোর্টে পৌঁছয়, তখন তাঁকে বেকসুর খালাস করে দেওয়া হয়। শোনা গিয়েছে, ক্রিস্টিন মালয়েশিয়ার বাসিন্দা। পড়াশোনার জন্য সিডনিতে থাকছিলেন। এই ছাত্রীর থেকে ইতিমধ্যেই আনলিমিটেড ওভারড্রাফটে ৯ কোটি টাকার সম্পত্তি ফিরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

Related Articles

Back to top button