গসিপবিনোদন

বিলাসবহুল জীবন কাটায় বচ্চন পরিবার! এদিকে অর্থকষ্ট ধুঁকছেন অমিতাভের পিসতুতো ভাই

বলিউড সুপারস্টার অমিতাভ বচ্চন সবসময়ই শিরোনামে থাকেন। এই যুগে যত বেশি আলোচনায় থাকেন, তত বেশি জনপ্রিয়তা বাড়ে। বিগ বি সোশ্যাল মিডিয়ায় খুবই সক্রিয় এবং তাঁর ভক্তদের সমসময়ই নিত্যনতুন আপডেট শেয়ার করতে থাকেন তিনি। শুধু তিনি কেন বচ্চন পরিবারের প্রতিটা সদস্যকে নিয়েই মাতামাতির শেষ নেই। মুম্বাইয়ের প্রতীক্ষা রাজপ্রাসাদে স্ত্রী-সন্তান পুত্রবধূ নাতনিকে নিয়ে বিলাসবহুল জীবন যাপন করেন বিগবি।

সম্প্রতি অমিতাভ বচ্চন তার বিখ্যাত কমেডি সিনেমা ‘চুপকে চুপকে ‘ মুক্তির ৪৬ বছর উপলক্ষে একটি আকর্ষণীয় কাহানি ভাগ করে নিয়েছিলেন। বিগ বি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি শেয়ার করেছেন, যা ‘চুপকে চুপকে’ জন্য সেট করা হয়েছিল। এই ছবিটি শেয়ার করার সময়, ক্যাপশনে এটি সম্পর্কিত আকর্ষণীয় গল্প বলেছেন অমিতাভ। তিনি লিখেছেন যে ‘হৃষীকেশ মুখোপাধ্যায়ের পরিচালিত এই চলচ্চিত্রটির ৪৬ বছর কেটে গেছে … !! ছবিতে আপনি যে বাড়িটি দেখছেন তা হল বিল্ডার এনসি সিপ্পির বাড়ি, যেটি আমরা তার থেকে কিনে পুনর্নির্মাণ করেছি। এটি এখন আমাদের বাড়ি জলসা !! তিনি জানান তাদের বাড়িতে প্রচুর চলচ্চিত্রের শুটিং হয়েছে। যেমন- আনন্দ, নমক হারাম, চুপকে চুপকে, সত্তে পে সত্তা, আরও অনেক…।

Amitabh Bacchan 48th Marriage anniversary

কিন্তু অমিতাভ প্রভূত সম্পত্তির মালিক হলেও তার এক পিসতুতো ভাই অর্থকষ্ট অনাহারে বিপুল দারিদ্র্যতায় দুর্বিষহ জীবনযাপন করছেন। অমিতাভের বাবা হরিবংশ রাই বচ্চনের নিজের বোনের ছেলে অনুপ তার নাম। কিন্তু, দাদা অমিতাভ নাকি তার দিকে ঘুরেও তাকায় না। পারিবারিক মনোমালিন্যর জেরেই মুখ দেখাদেখি বন্ধ তাদের।

অনুপ পেশায় সামান্য একজন ইলেকট্রিশিয়ান। কোনোরকম উপার্জনেই দিন আনা দিন খাওয়া চলে তাদের। গরীব বলেই নাকি অমিতাভ বচ্চনের ছেলে অভিষেক বচ্চনের বিয়েতেও যাননি তিনি। অনুপের বক্তব্য অনুযায়ী, হরিবংশ মারা যাওয়ার পর থেকেই নাকি তাদের দিক থেকে মুখ ফিরিয়েছেন অমিতাভ।

তাদের বিবাদের কারণ হিসেবে জানা যায়, হরিবংশ রাই বচ্চনের মৃত্যুর পর অমিতাভের পুরনো ভিটের একটা অংশ জাদুঘর করে ফেলার প্রস্তাব রেখেছিলেন অনুপ। তবে অমিতাভ নাকি এতে ভীষণ রেগে যান। এমনকি তিনি অনুপকে ভিটে ছেড়ে চলে যেতে বলেন। যদিও অনুপ এখনো সেই পুরনো বাড়িতেই রয়েছেন। এই বাড়ির সঙ্গে তার অনেক স্মৃতি জড়িয়ে আছে। তাই তিনি নিজের বাড়ি ছাড়তে চান না।

Related Articles

Back to top button