খবরভাইরাল

বোনকে বাঁচাতে গিয়ে ক্ষতবিক্ষত দাদা! দুঃসাহসিক কাজের জন্য খুদেকে দেওয়া হল বক্সিং বেল্ট উপহার

ভাইবোনের সম্পর্ক (Brother Sister Relation) সত্যি অনবদ্য। সারাটা দিন একেঅপরের সাথে লড়াই চলতেই থাকে। অথচ ভালোবাসার বেলায় অঢেল ভালোবাসা দেখতে পাওয়া যায়। এই যেমন ধরুন বোনেরা দাদাদের খুব আদরের হয়। নানান খুনসুটি ঝগড়া হামেশাই লেগে থাকে। কিন্তু বোনের কিছু হলে কিন্তু দাদারা চুপ থাকে না। সম্প্রতি এক বোনকে বাঁচাতে চরম সাহসিকতার নজির গড়ল তাঁর দাদা।

ঘটনাটি যুক্তরাষ্ট্রের, সেখানে বোনকে বাঁচাতে হিংস্র কুকুরের সাথে যুদ্ধ করেছে এক ৬ বছরের ছেলে। ব্রিজার ওয়ালকার নামের ওই ছেলেটি তার চার বছরের ছোট বোনকে কুকুরের হাত থেকে বাঁচাতে নিজের পরোয়া না করেই ঝাঁপিয়ে পরে।

যেমনটা জানা যাচ্ছে একবছর আগে ব্রিজারের বোনকে একটি কুকুর আক্রমন করে। কুকুরটি কোনো যে সে কুকুর নয়, সেটি ছিল একটি জার্মান শেপার্ড। কোনো কিছু না ভেবে বোনকে বাঁচাতে ঝাঁপিয়ে পরে ব্রিজার। কুকুরের সাথে যুদ্ধে ব্রিজারের গালের একটা অংশ ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। তবে মোটেও ভয় পায়নি ব্রিজার। তাঁর মাথায় শুধু একটাই চিন্তা ছিল সেটা হল বোনকে বাঁচানো।

Boy Saved his sister from German shepherd

কুকুরের সাথে যুদ্ধের পরে রীতিমত ক্ষত বিক্ষত হয়ে পরে ব্রিজার। যেমনটা জানা গিয়েছে মোট ৯০ টি সেলাই পড়েছে ছোট্ট ব্রিজারের মুখে। বোনকে বাঁচাতে দাদার এই কীর্তি প্রকাশ্যে আসতেই ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়ে পড়েছে।

Boy Saved his sister from German shepherd

যদিও ঘটনাটি বেশ কিছুদিন আগেকার ঘটনা, তবে বর্তমানে ঘটনাটি বেশ চর্চিত হচ্ছে নেটমাধ্যমে। কারণ এমন দুঃসাহসিক কাজের জন্য বিশ্ব বক্সিং কাউন্সিলের তরফ থেকে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ান স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে তাঁকে। ব্রিজারের এই সাহসিকতাপূর্ণ কাজটি একটি ঐতিহাসিক ঘটনা বলেই মনে করছেন ওয়ার্ল্ড বক্সিং কাউন্সিল। তাই আজীবন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ান ঘোষণা করে সর্বাধিক প্রাপ্য বেল্টটি সম্মানের তরফে দেওয়া হয়েছে ব্রিজারকে।

Related Articles

Back to top button