বিনোদন

ছেলে হবে না মেয়ে মাস দুয়েক আগেই জেনে গিয়েছেন নুসরত জাহান! কেক কেটে করলেন সেলিব্রেশন

সেপ্টেম্বরেই মা হতে চলেছেন অভিনেত্রী নুসরত জাহান ( Nusrat Jahan), ইতিমধ্যেই প্রকাশ্যে এসেছে অভিনেত্রীর বেবিবাম্পের ছবি। তাকে নিয়ে হাজারো বিতর্ক দানা বাঁধলেও তা নিয়ে বিন্দুমাত্র মাথা ঘামান না অভিনেত্রী। বরং তিনি রয়েছেন নিজের ছন্দেই। দিন কয়েক আগেই তিনি নুসরত বিবৃতি দিয়ে জানান, “নিখিলের সাথে তিনি কেবল সহবাস করেছেন, তাদের কোনোরকম বিয়েই হয়নি”। এদিকে অন্তঃসত্ত্বা অভিনেত্রীর বেবিবাম্পের ছবি ইতিমধ্যেই ভাইরাল নেটমাধ্যমে।

তবে নিখিল স্পষ্ট জানিয়েছেন নুসরতের সন্তানের বাবা তিনি নন। এই মন্তব্যের পরেই নুসরতের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে উঠছে হাজারো প্রশ্ন। বিতর্ক চলছে যশ-নুসরতের সম্পর্ক নিয়েও। কিন্তু এত বিতর্কের মাঝেও একদিকে যেমন গর্ভ নিরোধক ওষুধের বিজ্ঞাপন করে চলেছেন নায়িকা, অন্যদিকে তেমনই সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের বেবি বাম্প ফ্লন্ট করে একাধিক ছবিও শেয়ার করে চলেছেন তিনি।

এদিকে নুসরতের সন্তানের পিতৃ পরিচয় কী তা নিয়ে এখনও বিতর্ক জারি রয়েছে। কেননা নিখিল আগেই জানিয়েছিলেন, নুসরতের আসন্ন বাচ্চার বাবা তিনি নন। কিন্তু এইসব প্রশ্নের উত্তর দিতে নারাজ অভিনেত্রী। বিতর্কিত প্রশ্নের ক্ষেত্রে মুখে কুলুপ আঁটলেও, তার আগত সন্তান ছেলে হবে না মেয়ে তা জানিয়ে দিলেন অভিনেত্রী।

পাশ্চাত্য সংস্কৃতিতে সন্তানের লিঙ্গ প্রকাশ করার উপলক্ষে পার্টির আয়োজন করা হয়। যেখানে একটি কেক কাটা হয়। যিনি কেকটি বানায়, কেবল তিনিই সন্তানের লিঙ্গ জানবেন। কেক বানানোর সময়ে তার ভিতরে নীল অথবা গোলাপি রঙের স্তর থাকে। নীল স্তর থাকলে বোঝা যায় পুত্রসন্তান হবে, আর গোলাপি মানে কন্যাসন্তান। ঠিক এমনই এক কেকের ছবি এদিন নিজের স্টোরিতে শেয়ার করেছেন নুসরত।

যেখানে একটি সাদা কেকের উপর লেখা রয়েছে বয় ওর গার্ল। বয় অর্থাৎ পুত্রের উপর নীল এবং গার্ল অর্থাৎ কন্যার উপর গোলাপি পতাকা আঁকা। অর্থাৎ ধরে নেওয়াই যায় নুসরতের গর্ভের সন্তান ছেলে না মেয়ে তার আভাস পেয়ে গিয়েছেন অভিনেত্রী।

Related Articles

Back to top button