গসিপবিনোদনসিনেমা

খলচরিত্রে অভিনয় করেই জিতেছেন দর্শকের মন, প্রয়াত হলেও আজ স্মরণীয় অমরীশ পুরী

বলিউডের (Bollywood) সিনেমা মানেই হিরো হিরোইন অ্যাকশন সবকিছুই মাথায় আসে। কিন্তু একজনকে ছাড়া বলিউডের ছবি অসম্পূর্ণ থেকে যায় হ্যাঁ ঠিকই ধরেছেন, খলনায়ক বা ভিলেন। বলিউডের সবচাইতে জনপ্রিয় খলনায়কদের মধ্যে অন্যতম হলেন অমরীশ পুরী (Amrish Puri)। লম্বা চেহারা থেকে ভারী কণ্ঠস্বর সবটা মিলে খলনায়কের চরিত্রের জন্য একেবারে আদর্শ অভিনেতা ছিলেন তিনি। বিশেষত ‘মোগ্যাম্বো’ চরিত্রে তাঁর অভিনয় আজ স্মরণীয়।

অভিনেতা অনেক বেশি বয়সে অভিনয় শুরু করেছিলেন। প্রায় জীবনের অর্ধেকেরও বেশি সময় পেরিয়ে অভিনয়ে আসেন। তবে তাঁর পিছনে রয়েছে এক কাহিনী। ৩০ বছরেরও বেশি সময় অভিনয়ের জগতে ছিলেন, করেছেন ৪০০ এরও বেশি ছবি। যার মধ্যে মিস্টার ইন্ডিয়া, ডিডিএলজে, নায়ক এর মত একাধিক সুপারহিট ছবি রয়েছে। তবে বেশিরভাগ ছবিতেই মূলত খলনায়কের চরিত্রে দেখা গিয়েছে অমরীশ পুরীকে।

কিন্তু এমন প্রতিভাবান একজন অভিনেতা শেষ জীবনে টিউমারের কাছে হার মানেন। মস্তিষ্কের টিউমার ধরা পড়েছিল অভিনেতার। আজকের দিনে অর্থাৎ ১২ই জানুয়ারি ২০০৫ সালে প্রয়াত হন অমরীশ পুরী। দেখতে দেখতে আজ ১৭টা বছর পেরিয়ে গেল প্রয়াত হয়েছেন অমরীশ পুরী। তবে নিজের দুর্দান্ত অভিনয়ের মধ্যে দিয়ে আজও দর্শকদের হৃদয়ে বেঁচে আছেন তিনি।

অনেকেই হয়তো জানেন না অভিনেতা জন্মসূত্রে ভারতীয় নয়। ১২ই জুন ১৯৩২ সালে পাকিস্তানের পাঞ্জাবে জন্মগ্রহণ করেছিলেন অমরীশ পুরী। সেখানেই দুই দাদা, এক দিদি ও এক ভাইয়ের সাথে বড় হন। অভিনয়ের সাথে পারিবারিক যোগ ছিল, তাই ছোট থেকেই অভিনয়ের প্রতি টান ছিল। দুই দাদা চমন পুরী ও মদন পুরী বলিউডে কেরিয়ার তৈরী করেছিলেন খলনায়ক হিসাবেই। এরপর অমরীশ পুরীও সেই থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে অভিনয়ে আসেন।

বলিউডে নিজের কেরিয়ার তৈরী করতে হাজির হন মুম্বাই শহরে। কিন্তু শুরুতেই মুখ থুবড়ে পড়েন, অডিশনে মেলে ব্যর্থতা। এরপর হতাশ হয়ে অভিনয় ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেন, চাকরির খোঁজ করে সরকারি চাকরি করতে শুরু করেন। চাকরি সূত্রে পরিচয় হয় স্ত্রী উর্মিলার বিবেকের সাথে। শুরুতে দুজনের প্রেম থেকে বিয়ের পথে কাঁটা হয়েছিল পরিবার, তবে শেষমেশ রাজি হয়। বিয়ের পর অমরীশ পুরীকে অভিনয়ের জন্য অনুপ্রেরণা দিতে থাকেন স্ত্রী উর্মিলা।

এরপর ৪০ বছর বয়সে স্ত্রীর সাপোর্টে আবারও বলিউডে নিজেকে পরখ করতে বেরিয়ে পড়েন অমরীশ পুরী। প্রথম ছবি করেন, প্রেম পূজারী (১৯৭০)। এরপর একে একে কাজ আসতে থাকে। ৮০ এর দশকে ‘হাম পাঁচ’ ছবিতে খলচরিত্রে অভিনয় দারুন জনপ্রিয়তা পায়। তারপর থেকেই বলিউডের খলনায়ক হিসাবে বিখ্যাত হয়ে পড়েন অমরীশ পুরী।

সেই থেকে আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি অমরীশ পুরীকে। এরপর এক ছবিতে দুর্দান্ত অভিনয় করে সাফল্যের চূড়ায় পৌঁছে গিয়েছিলেন তিনি। জানা যায় একটি ছবির জন্য ১ কোটি টাকা পর্যন্ত পারিশ্রমিক নিতেন অমরীশ পুরী। মিস্টার ইন্ডিয়া থেকে ডিডিএলজে হোক বা চাচী ৪২০ ছবির দুর্দান্ত অভিনয়ের মধ্যে দিয়েই আজও কোটি কোটি দর্শকদের হৃদয়ে অমর হয়ে রয়েছেন অভিনেতা।

Related Articles

Back to top button