গসিপবিনোদনসিনেমা

মাদকের নেশা থেকে আতঙ্কবাদী হামলা! সঞ্জয় দত্ত, রিয়া চক্রবর্তী সহ এই ৬ তারকাদের জুটেছে হাজতবাস

সম্প্রতি বলিউডের সুপারস্টার শাহরুখ খানের (Shahrukh Khan) ছেলে আরিয়ান খান (Aryan Khan) মাদক কাণ্ডে NCB এর হাতে ধরা পড়েছে। এই খবর প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই তুমুল আলোচনা শুরু হয়েছে সর্বত্র। বি টাউন থেকে শুরু করে সোশ্যাল মিডিয়া সর্বত্রই বলিউডে মাদক চক্র নিয়ে আলোচনা চলছে। তবে শুধুই আরিয়ান নয় এর আগেও বলিউডের একাধিক তারকা ও তারকা পুত্ররা মাদককাণ্ডে ধরা পড়েছে।

আজ বংট্রেন্ডে বলিউডের সেই সমস্ত তারকাদের তালিকা তুলে ধরা হল যারা একসময় মাদককাণ্ডে জড়িয়ে শিরোনামে উঠে এসেছিলেন। তালিকায় এমন কিছু অভিনেতারও দেখা মিলবে যারা একসময় নেশায় রীতিমত তলিয়ে যাচ্ছিলেন। তবে অনেকেই রিহ্যাবে গিয়ে আবারো ফিরে এসেছেন সুস্থ হয়ে।

আরিয়ান খান (Aryan Khan)

সম্প্রতি মুম্বাইয়ের বিলাসবহুল ত্রুজ শিপে ড্রাগের নেশা করে চলছিল উদ্যম পার্টি সেখান থেকেই NCBএর হাতে ধরা পড়েছে শাহরুখ খান পুত্র আরিয়ান খান।

সঞ্জয় দত্ত (Sanjay Dutt)

বলিউডের  বিখ্যাত অভিনেতা সঞ্জয় দত্ত। বিখ্যাত অভিনেতা সুনীল দত্তের সন্তান সঞ্জয় দত্ত। অভিনেতা একসময় ড্রাগসের নেশায় ডুবে গিয়েছিলেন। তারপর বাবা সুনীল দত্ত জানতে পেরে তাকে রিহ্যাবে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন ও নতুন জীবন দেন। নিজের বায়োপিক ‘সঞ্জু’ থেকে শুরু করে সাক্ষৎকারেও অভিনেতা স্বীকার করেছেন যে তিনি একসময় ড্রাগসের নেশায় রীতিমত ডুবে গিয়েছিলেন। এছাড়াও ১৯৯৩ সালে মুম্বাই ব্লাস্টের সাথে নাম জড়ানোয় ৬ বছরের জেল হয় অভিনেতার, যেটা পরে কমে ৫ বছর  হয় ও শেষে ৪ বছর ৪ মাসেই মুক্তি পান তিনি।

রিয়া চক্রবর্তী (Rhea Chakraborty)

রিয়া চক্রবর্তী Rhea Chakraborty

গতবছর অভিনেত সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর প্রাথমিকভাবে সন্দেহের তীর এগোয় রিয়া চক্রবর্তীর দিকে। সেই সময় NCB এর হাতে গ্রেফতার হন অভিনেত্রী। এমনকি ১ মাস জেলেও থাকতে হ হয়েছিল তাকে। তবে পরে জামিনে মুক্তি পেয়ে গিয়েছেন রিয়া।

ফারদীন খান (Fardeen Khan) 

বলিউডের অভিনেতা ফারদীন খান, একসময় সুপারহিট ছবিতে দেখা যেত অভিনেতাকে। তবে বর্তমানে অভিনয় অভিনেতাকে আর দেখতে পাওয়া যায় না। ২০০১ সালের মুম্বাই পুলিশের কাছে মাদককাণ্ডে গ্রেফতার হয়েছিলেন অভিনেতা। জানা যায় সেইসময় ৯ গ্রাম কোকেন উদ্ধার করা হয়েছিল অভিনেতার কাছ থেকে। তবে জেলে গেলেও বেশিদিন থাকতে হয়নি তিন দিনের মাথাতেই মুক্তি পেয়ে যান তিনি।

শাইনে আহুজা (Shiney Ahuja)

‘গ্যাংস্টার’ অভিনেতা শাইনে আহুজা একসময় বলিউডে  বেশ জনপ্রিয় ছিলেন। তবে ২০০৯ সালেই জনপ্রিয়তার হয়। বাড়ির পরিচারিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে অভিনেতার বিরুদ্ধে। কোর্টে মামলা ওঠে ও ৯ বছরের জন্যজেল হয় অভিনেতার। যদিও ২০১১ সালেই তিনি জামিন পেয়ে গিয়েছিলেন।

সুরজ পাঞ্চোলি (Suraj Pancholi)

বলি অভিনেতা সুরজ পাঞ্চোলি অভিনেত্রী জিয়া খান আত্মহত্যা মামলায় দোষী প্রমাণিত হন। তার বিরুদ্ধে অভিনেত্রীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেবার অভিযোগ ছিল। সেই কারণে ২০১৩ সালে জেলে যেতে হয়েছিল অভিনেতাকে তবে শীঘ্রই জামিন পেয়ে যান তিনি। সেই জামিনের জেরেই আজও  জেলের বাইরে অভিনেতা। মামলাটিও আদালতে চলছে এখনও

Related Articles

Back to top button