গসিপবিনোদনসিনেমা

ছোটবেলার স্বপ্ন ছেড়েই আসা বলিউডে! উচ্চ মাধ্যমিকে প্রথম হয়েছিলেন পরিণীতি, আজ সফল অভিনেত্রী

বলিউড (Bollywood) অভিনেত্রী পরিনীতি চোপড়ার (Pariniti Chopra) অভিনয় দক্ষতা নিয়ে আলাদা করে কিছু বলার অপেক্ষা রাখে না। কিন্তু ভালো অভিনয় করা সত্ত্বেও গ্ল্যামার দুনিয়ায় (Glamour World) টিকে থাকার লড়াইয়ে কোথায় যেন হারিয়ে গেলেন এই দক্ষ অভিনেত্রী। কারণ হিসাবে বিশেষজ্ঞরা বলে থাকেন আজকের গ্ল্যামার জগতে শুধুমাত্র ভালো অভিনয় দিয়ে টিকে থাকা যায় না। এক্ষেত্রে পরিণীতিকে পিছিয়ে দিয়েছে তাঁর অপেক্ষাকৃত মোটা চেহারা। নায়িকা সুলভ মারকাটারি জিরো ফিগার ছাড়া দর্শকদের মন জয় করা সম্ভব হচ্ছে না পরিনীতির পক্ষে।

তবে আজ তিনি বলিউডের জনপ্রিয় মুখ হলেও একটা সময় ছিল যখন পড়াশোনাই একমাত্র ধ্যান জ্ঞান ছিল পরিনীতির। হরিয়ানার অম্বালায় ব্যবসায়ী পরিবারে জন্ম পরিণীতির। ছোট থেকেই তাঁর স্বপ্ন ছিল ইনভেস্টমেন্ট ব্যাঙ্কার হওয়ার।পড়াশোনাতেও তিনি ভাল ছিলেন।স্কুল লাইফে দ্বাদশ শ্রেণীর পরীক্ষায় তিনি দেশের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করেছিলেন এবং রাষ্ট্রপতির হাত থেকে পুরস্কার নেন তিনি।

Parineeti Chopra পরিণীতি চোপড়া

এরপর ১৭ বছর বয়সে উচ্চশিক্ষার জন্য ইংল্যান্ডে চলে যান। সেখানেই ম্যাঞ্চেস্টার বিজনেস স্কুল থেকে বিজনেস, ফিন্যান্স এবং ইকোনমিকস তিনটি বিষয়ে স্নাতকোত্তর করেন। বাড়িতে আর্থিক অবস্থা স্বচছল হলেও সেসময় ইউ কে-তে পড়াশোনার ফাঁকেই ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড ফুটবল ক্লাবের ক্যাটারিং সার্ভিসের টিম লিডার হিসাবে কাজ করতেন পরিনীতি।

Parineeti Chopra পরিণীতি চোপড়া

তবে মেধাবী ছাত্রী হওয়া সত্ত্বেও তিনি বিদেশে ভালো কোনোও চাকরি পাচ্ছিলেন না পরিণীতি। সেসময় দেশে ফেরার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। তখন তিনি তাঁর দিদি তথা বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়ঙ্কা চোপড়ার (Priyanka Chpra) সাথেই থাকতে শুরু করেন। দিদির সঙ্গেই যশ রাজ ফিল্ম স্টুডিয়োয় (Yash Raj Film Studio) যান তিনি। সেখানেই যশ রাজ স্টুডিয়োর পাবলিক রিলেশন টিমের সঙ্গে পাকাপাকিভাবে কাজ শুরু করেন তিনি।

সেই সময় তাঁর কাজ ছিল রানি মুখোপাধ্যায়, রণবীর সিংহের মতো অভিনেতাদের ইন্টারভিউয়ের ব্যবস্থা করে দেওয়া এবং তাঁদের প্রমোশন দেখা। প্রথমদিকে অভিনয়ের প্রতি আগ্রহ না থাকলেও পরে দিদি প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার সঙ্গে তাঁর ‘সাত খুন মাফ’ ছবির শ্যুটিং দেখে অভিনয়ের প্রতি তাঁর আগ্রহ জন্মায়। এরপরেই অভিনয় শেখার কথা ভাবেন পরিণীতি। পরবর্তীকালে আদিত্য চোপড়া তাঁর বিনয় দেখে পরপর তিনটি ছবিতে কাজ করার সুযোগ দেন।

Related Articles

Back to top button