গসিপবিনোদন

মা হওয়ার পরেও এত নাচানাচি কীসের? সন্তান জন্ম দিয়ে কটাক্ষের শিকার, বিস্ফোরক মন্তব্য মাধুরীর

মা হওয়ার পর প্রত্যেক মেয়েরই জীবন বদলে যায়। বলিউড (Bollywood) অভিনেত্রী কিংবা টেলিভিশন অভিনেত্রীরাও (Television actress) এর ব্যতিক্রম নন। একইসঙ্গে সদ্যোজাত সন্তান এবং কাজ সামলানো একেবারেই চারটি খানি কথা নয়। প্রত্যেক মা’কেই এই কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে। ব্যতিক্রম নন বলিউডের ‘ধক ধক গার্ল’ মাধুরী দীক্ষিতও (Madhuri Dixit)।

নাচের কথা উঠলেই, বলিউডের যে অভিনেত্রীর নাম সবার প্রথমে মাথায় আসে তিনি হলেন মাধুরী। শুধুমাত্র নাচই নয়, মাধুরীর এক্সপ্রেশনও একেবারে ‘মার ডালা’ গোছের। গত কয়েক দশক ধরে নিজের নাচের মাধ্যমে দর্শকদের মন জয় করেছেন তিনি এবং এখনও তাঁর নিজের নৃত্য শৈলী এবং অভিনয়ের মাধ্যমে প্রত্যেককে মুগ্ধ করে যাচ্ছেন মাধুরী।

Madhuri Dixit dancing

তবে আপনি কি জানেন, বলিউডের সেই ‘ডান্সিং ক্যুইন’ মাধুরীকেই বিয়ের পর নাচ, অভিনয় ভুলে ঘরে বসতে বলা হয়েছিল। সম্প্রতি একটি নামী সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপচারিতার সময় এই নিয়ে মুখ খোলেন বলি সুন্দরী। জানান, শ্রীরাম নেনের সঙ্গে বিয়ে এবং সন্তান জন্মের পর তাঁর প্রতি দর্শকদের দৃষ্টিভঙ্গিই সম্পূর্ণ বদলে গিয়েছিল।

সংশ্লিষ্ট  সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপচারিতার সময় মাধুরী জানান তাঁর সঙ্গে সেই সময় অনেকে কীভাবে কথা বলতেন। অভিনেত্রী বলেন, ‘’এখন তুমি একজন মা, এখনও কেন নাচছ? দয়া করে এবার বাড়িতে বসে সংসারের দেখভাল করো’। তবে আমার মনে হয় আমরা এমনিতেই এটা করি। সন্তান এবং বাড়ির দেখাশোনা আমরা এমনিতেই করি’।

Madhuri Dixit with sons

বলি সুন্দরীর কথায়, মানুষ গৃহবধূদের একেবারেই পাত্তা দেয় না এবং এই ধরণের চিন্তাভাবনা একেবারেই ঠিক নয়। অভিনেত্রীর মতে, একজন মহিলার নিজের জন্যও কিছু করা উচিত। তবে বলিউডের ‘ধক ধক গার্ল’ এও জানিয়েছেন যে বাইরের লোক তাঁকে নাচ, কাজ ছেড়ে বাড়িতে বসার কথা বললেও তাঁর মা, স্বামী এবং শাশুড়ি কোনোদিন একথা বলেননি। তাঁরা চিরকাল অভিনেত্রীকে সাপোর্ট করেছেন।

Madhuri Dixit with family

মাধুরীর কাজের দিক থেকে বলা হলে, তাঁকে শেষ দেখা গিয়েছিল আনন্দ তিওয়ারির ‘মাজা মা’ ছবিতে। একটি ওটিটি প্ল্যাটফর্মে রিলিজ করেছে সেই সিনেমা। মাধুরীর সঙ্গেই সেই ছবিতে অভিনয় করেছেন গজরাজ রাও, ঋত্বিক ভৌমিক, বরখা সিংয়ের মতো শিল্পীরা। এছাড়াও অভিনেত্রীকে করণ জোহর এবং নোরা ফাতেহির সঙ্গে ‘ঝলক দিখলা জা’য় বিচারক হিসেবে দেখা যাচ্ছে।

Related Articles

Back to top button