খবরবিনোদনসিনেমা

ঈদে রোজা রেখেছিলেন ভাস্বর, তবে দেশের বাড়ির পুজোয় ভাইয়ের দেওয়া শাড়িতেই সাজাবেন মা দুর্গাকে

বাংলায় এখন সাজোসাজো রব কারণ দেবী দূর্গার আগমনে বাকি আর মাত্র কয়েকটা দিন। ঠিক মত গুনলে একমাসও আর বাকি নেই। বাঙালির শ্রেষ্ঠপুজো দুর্গাপুজোর আগে পুজোর আমেজ হাজির হয়েছে ইতিমধ্যেই। করোনা মহামারীর প্রভাব গতবছরই পড়েছিল দুর্গাপুজোয়। এবছরেও সেই প্রভাব রয়েছে খানিকটা। তবে দূর্গা পুজো কি আর মিস করা যায় নাকি! বাকি সকলের মত টলিউড অভিনেতা ভাস্বর চ্যাটার্জী (Bhaswar Chatterjee) নিজেও প্রস্তুতি নিচ্ছেন দুর্গাপুজোর।

এবারের দুর্গাপুজো নিজের দেশের বাড়িতেই কাটাতে চান অভিনেতা। শহরের কোলাহলের থেকে দূরে গ্রামের বাড়িতেই কাটাতে চান পুজোর কটা দিন। এবছরেই মে মাসে নিজের এক দাদাকে হারিয়েছেন ভাস্বর। পরিবারের একজনকে হারিয়ে পুজোর আনন্দে মাতার ইচ্ছা নেই কারোরই। কিন্তু মা দুর্গার আরাধনাও যে করতেই হবে। তাই অল্প কিছু আত্মীয়দের নিয়েই এবারে পুজো সারা পরিকল্পনা করেছেন অভিনেতা।

সম্প্রতি সংবাদ মাধ্যমে অভিনেতা জানিয়েছেন যে দাদাকে তিনি মে মাসে হারিয়েছেন তিনিই সবচাইতে বা বেশি আগ্রহী ছিলেন পুজো নিয়ে। বাড়ির পুজোতে তারই ভূমিকা ছিল অনেকটা, কিন্তু এবছর সেই দাদাই আর নেই। তার অভাবটা বুঝতে পারা যাচ্ছে আরো বেশি করে। দেখতে দেখতে এবছর ৭৯তে পা দিয়েছে অভিনেতার বাড়ির পুজো। গতবছর করোনার কারণে অভিনেতা নিজে আসতে পারেননি, তবে এবার তিনি থাকবেন পুজোতে।

যেহেতু মন খারাপ তাই পুজোর কেনাকাটা কিছুই হয়নি বললেই চলে। তবে পুজোয় কিছু হলেও নতুন পড়তে হয় তাই মায়ের কথা রাখতে স্বস্তিতে নতুন জামা পড়বেন তিনি। এছাড়া অষ্টমীর দিনে অঞ্জলি দেবার সময় জোর পরে দেবেন অঞ্জলি। আর মা দুর্গার জন্য কাশ্মীরি এক ভাইয়ের নিজের হাতের তৈরী শাড়ি নিয়ে যাচ্ছেন। পুজোয় সেই শাড়ি পোড়ানো হবে দেবী দুর্গাকে।

বেশ ধুমধাম করেই আয়োজন হয় অভিনেতার বাড়ির পুজোর। দেবী দুর্গার পূজার পাশাপাশি থাকে ভোজের আয়োজনও। তবে এবারের পুজো কিছুটা হলেও ফিকে হলেও হতে পারে। প্রসঙ্গত, এবছরেই প্রথমবার রোজা রেখেছিলেন অভিনেতা। সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করেছিলেন সেই কথা। বন্ধুদের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন নিজের বাড়ির পুজোতে। কিন্তু অভিনেতার পরিবারে ঘটে যাওয়া অঘটনের কথা শুনে এবছর নয় পরের বছরই যাবার কথা জানিয়েছেন তাঁরা।

Related Articles

Back to top button