বিনোদনভাইরালভিডিও

সংবেদনশীল বিষয়ে মন্তব্য করে আইনি বিপাকে ভারতী সিং! চাপের মুখে করজোড়ে ক্ষমা চাইলেন নতুন মা

মজার কথাও কখন যে কীভাবে কার মনে লেগে যায় তা বলা মুশকিল। সম্প্রতি ঠিক যেমনটা হয়েছে ভারতীয় টেলিভিশনের কমেডি ক্যুইন ভারতী সিংয়ের (Bharti Singh) সাথে। এমনিতে হাসি-ঠাট্টা করে লোক হাসাতে ভারতী সিংয়ের মতো কৌতুক অভিনেত্রীর (Comedian) জুড়ি মেলা ভার। অনুরাগীদের কাছে ভারতীর জনপ্রিয়তা রয়েছে চোখে পড়ার মতো।

কিন্তু দাড়ি-গোঁফ নিয়ে করা অতীতের মন্তব্য যে এভাবে তাঁর ওপর বুমেরাং হয়ে ফিরে আসবে একথা বোধ হয় স্বপ্নেও কল্পনা করেননি ভারতী নিজেও। ইদানীং সোশ্যাল মিডিয়ায় ভারতীর একটি পুরনো ভিডিও ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হয়েছে। সেই ভিডিওতে দাড়ি -গোঁফ নিয়ে ভারতীর করা মন্তব্য শুনে নেটিজেনদের একটা বড় অংশের দাবি ,এইভাবে ভারতী আদতে শিখ ধর্মাবলম্বীদের অপমান করেছেন।


‘ভারতী কা শো’য়ের ওই পুরনো ভিডিওতে ভারতী তার বন্ধু জাসমিন ভাসিনকে দাড়ি-গোঁফ থাকার হরেক রকম সুবিধার আছে জানিয়ে রসিকতা করে বলেছিলেন ‘দাড়ি-গোঁফের কত সুবিধা আছে জানো?’ তবে শুধু সুবিধা নয় অসুবিধার কথাও জানিয়ে অভিনেত্রী বলেন ‘আমার অনেক বন্ধুর বিয়ে হয়েছে লম্বা লম্বা দাঁড়িওয়ালা লোকেদর সঙ্গে। সারাদিন দাঁড়ি থেকে উকুন বাছতেই সময় কেটে যায় তাদের।’

পুরনো এই ভিডিও থেকেই শুরু হয় বিতর্ক। শিখ ধর্মাবলম্বীদের ভাবাবেগে আঘাত করার অভিযোগ তুলে সোমবার রাতেই পঞ্জাবের অমৃতসরে শিরোমণি গুরদ্বরা প্রবন্ধক কমিটি (Shiromani Gurdwara Parbandhak Committee) ভারতীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। ভারতীর বিরুদ্ধে জলন্দরের আদমপুর থানায় এই ভারতীয় দন্ডবিধি ২৯৫-এ ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।


সম্প্রতি গোটা বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছিলেন ভারতী নিজে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও শেয়ার করে ভারতী জানিয়েছেন ‘অনেকেই ষ অভিযোগ করেছেন যে, আমি নাকি দাড়ি-গোঁফ নিয়ে রসিকতা করে ধর্মকে অপমান করেছি। কিন্তু ভাল করে ভিডিওটা দেখলে বোঝা যাবে আমি কোনও ধর্মের নাম নিইনি। তবে কেউ যদি আমার মন্তব্যে আঘাত পান আমি করজোরে ক্ষমা চাইছি। আমি নিজেও একজন পাঞ্জাবি। আর পাঞ্জাবি হিসেবে আমি গর্বিত।’

Related Articles

Back to top button