বিনোদনসিরিয়াল

যত্ত অশান্তির মূলে স্যান্ডি সাহাই! মাত্র ৫ মাস যেতে না যেতেই বন্ধের পথে ‘বসন্তবিলাস মেসবাড়ি’

বাংলার জনপ্রিয় ইউটিউবার স্যান্ডি সাহা (Sandy Saha) পা রেখেছেন সিরিয়ালের জগতে। প্রথম যখন খবরটা প্রকাশ্যে আসে তখনই তুমুল চর্চা শুরু হয়ে গিয়েছিল। কালার্স বাংলার (Colors Bangla) ‘বসন্ত-বিলাস মেসবাড়ি’ (Basanta Bilas Messbari) ধারাবাহিকে এই মুহূর্তে দেখা যাচ্ছে তাকে। তবে সিরিয়ালের জগতে পা রাখতেতিনি শিরোনামে এসেছিলেন ই বিতর্কে জড়িয়েছিলেন তিনি। কিছুদিন আগেই জনপ্রিয় অভিনেত্রীর শ্রীতমা ভট্টাচার্যের (Sritama Bhattacharya) সাথে ঝামেলা বাঁধিয়ে।

এই প্রসঙ্গে স্যান্ডি জানিয়েছিলেন, ওই দিন হয়তো মুড্ খারাপ ছিল শ্রীতমার। তবে সেদিন শুধুমাত্র ইয়ার্কির ছলেই কথাটা বলেছিলেন তিনি। বাইরে থেকে তো আর কাউকে বোঝা সম্ভব নয়। এছাড়াও স্যান্ডির স্পষ্ট মন্তব্য আমার সাথে যে যেমন ব্যবহার করবে আমিও ঠিক তেমনটাই ব্যবহার করব। কেউ খারাপ কিছু বললেও আমার থেকেও খারাপ ব্যবহারটাই পাবে। সেটা বড় কেউ বলে ছেড়ে দিয়ে চুপ থাকতে পারবো না। বর্তমানে ঝামেলার আর কিছুই নেই সবটাই মিটে গিয়েছে।

সিরিয়ালের নায়িকার ভাইয়ের চরিত্রে অভিনয় করছেন স্যান্ডি। কালার্স বাংলার সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রোমো রিলিজ হওয়ার পরেই ব্যাপক চর্চা শুরু হয়েছিল। মাথায় টুপি, চোখে লাল হলুদ চশমা আর ঠোঁটে হালকা লিপস্টিক পরে এন্ট্রি নিয়েই স্যান্ডি বলে ওঠে, “এই নটি আমি পিপস।” এরপর সোজা চুমুর অঙ্গভঙ্গি। সকলেই ভেবেছিল তার আগমনে TRP বাড়বে ,কিন্তু হল ঠিক উল্টোটা।

শোনা যাচ্ছে ,খুব শিগগিরিই নাকি বন্ধ হতে চলেছে ধারাবাহিকের সম্প্রচার। আর এই ঘটনা সোনা মাত্রই রেগে লাল ধারাবাহিকের দর্শকেরা।  ‘বসন্তবিলাস মেসবাড়ি’ ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন  নন্দিনী দত্ত, রাহুল বন্দ্যোপাধ্যায় টি শুরু করে কাঞ্চন মল্লিক, কমলিকার মতো তারকারা ,এনাদের সাথে স্যান্ডিকে ঢোকানো উচিৎ হয়নি বলেই মত নেটিজেনদের একাংশের।

 

এদিন সিরিয়ালের পরিচালক পাভেল ঘোষ সংবাদ মাধ্যমকে জানান , প্রথমদিকে TRP সেভাবে না এলেও শেষ কয়েকদিনে বেশ জনপ্রিয় হয়েছিল ধারাবাহিকটি। তবুও আচমকাই নাকি প্রজোযকরা ধারাবাহিক বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন। পরিচালক যতই শাক দিয়ে মাছ ঢাকার চেষ্টা করুক ,নেটিজেনদের দাবি সিরিয়াল বন্ধের কারন একমাত্র স্যান্ডিই। স্যান্ডির ওভার এক্টিং মোটেই ভালো চোখে দেখছেন না অনুরাগীরা। এত জনপ্রিয়তা থাকা সত্বেও তাই হঠাৎই বন্ধ করে দিতে হচ্ছে ধারাবাহিক।  ইতিমধ্যেই শুক্রবার সাড়া হয়ে গিয়েছে ধারাবাহিকের শেষ শুটিং ,স্বভাবতই মন খারাপ ধারাবাহিকের দর্শক থেকে শুরু করে কলাকুশলীদের।

 

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Colors Bangla (@colorsbangla)

Related Articles

Back to top button