খবরবিনোদনসিনেমা

সবটাই সাজানো! টাকা লোটার ধান্দায় ফাঁসানো হয়েছিল আরিয়ানকে, বিস্ফোরক দাবি মাদকমামলার সাক্ষীর

প্রতিনিয়তই মাদক কান্ডের পরতে পরতে আসছে নতুন মোড়। ফের একবার শাহরুখ পুত্র আরিয়ান খানের মাদক মামলায় এল চাঞ্চল্যকর মোড়। সম্প্রতি এই মামলার অন্যতম সাক্ষী বিজয় পাগারে মুম্বই পুলিশের বিশেষ তদন্তকারী দল অর্থাৎ সিটের (Special Investigation Team) কাছে কার্যত বোমা ফাটিয়ে দাবি করেছেন, মাদক মামলায় ইচ্ছাকৃতভাবেই ফাঁসানো হয়েছে শাহরুখ (Shahrukh Khan) পুত্র আরিয়ান খান (Aryan Khan)-কে।

এই মামলার অন্যতম সাক্ষী ওই ব্যাক্তির দাবি, গত ২ অক্টোবর এনসিবি মুম্বইয়ের ক্রুজশিপ পার্টিতে যে তল্লাশি অভিযান চালানো হলেও গোটা ঘটনাটাই ২৭ সেপ্টেম্বর থেকেই প্লানিং করা হয়েছিল। আরিয়ান খান ওই প্রমোদতরীতে উপস্থিত থাকবে জেনেই গোটা পরিকল্পনাটি বানানো হয় বলে দাবি করেছেন পেগরে। সেইসাথে তিনি দাবি করেছেন শাহরুখ খানের থেকে মোটা টাকা হাতানোর উদ্দেশ্যেই আরিয়ানকে ফাঁসানো হয়েছিল।

 

উল্লেখ্য এই মাদক মামলায় একাধিক বার উঠে এসেছে সুনীল পাটিলের নাম।তিনিই এনসিবিকে ওই বিলাসবহুল পার্টিতে মাদকের আসর বসার খবর দিয়েছিলেন। পাগারের দাবি তার সঙ্গেই বিগত কয়েক মাস ধরে থাকছিলেন তিনি। আর সেই সময়ই তিনি গোটা ঘটনার পরকল্পনার কথা জানতে পারেন।

 

পাগারের দাবি গত ২৭ সেপ্টেম্বর থেকেই নভি মুম্বইয়ের ফরচুন হোটেলে থাকছিলেন সুনীল পাটিল। ওই হোটেলেই আবার কেপি গোসাভি এবং এই মামলার আরেক সাক্ষী,তথা বিজেপি কর্মী মনীশ ভানুশালীর নামেও একটি ঘর বুক করা ছিল। উল্লেখ্য, কেপি গোসাভির বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি শাহরুখ খানের ম্যানেজার পুজা দাদলানির কাছ থেকে প্রথমে ২৫ কোটি টাকা চেয়েছিলেন আরিয়ান খানকে মাদক মামলা থেকে নিষ্পত্তি দেওয়ার জন্য।

এখানেই শেষ নয় বিজয় পাগারের দাবি, কর্ডোলিয়া শিপে তল্লাশি অভিযান চালানোর কয়েকদিন আগেই হোটেলে মনীশ ভানুশালী,কেপি গোসাভি ও সুনীল পাটিল দেখা করেন। সেখানে নাকি মনীশ ভানুশালী সুনীল পাটিলকে বলেছিলেন,’অনেক বড় কাজ হয়ে গেল। আমাদের আহমেদাবাদ চলে যেতে হবে। কিন্তু পাগারেকে সঙ্গে আনবে না।’ তবে সেসময় কি ঘটছিল সে সম্পর্কে অজ্ঞ ছিলেন পাগারে।

Related Articles

Back to top button