বিনোদন

গাঁজার ব্যবসা করছি, কোকেন হবে! শুনানির আগেই ফাঁস আরিয়ান অনন্যার কুকীর্তির হোয়াটস্যাপ চ্যাট

গত কয়েকদিন ধরে মাদককান্ডে লাগাতার শিরোনামে রয়েছেন শাহরুখ পুত্র আরিয়ান খান (Aryan Khan)। তবে এখন আর তিনি একা নন চাঙ্কি পান্ডে কন্যা অনন্যা পান্ডের (Ananya Panday) এর নামও ইতিমধ্যেই তার পাশে জ্বলজ্বল করছে। আরব সাগরের তীরে বিলাসতরণী কর্ডেলিয়া এমপ্রেস শিপে (Cordelia Empress Ship) চলছিল ‘রেভ পার্টি’। সেই পার্টি থেকেই মাদককাণ্ডে এনসিবির তদন্তকারী অফিসারদের হাতে আরও ৮ জনের সাথে গ্রেফতার হন শাহরুখ পুত্র।

২৬ শে অক্টোবর বোম্বে হাইকোর্টে আরিয়ানের জামিনের আবেদনের শুনানি হয়, ঠিক তার আগেই এদিন ফাঁস হয়ে যায় শাহরুখ পুত্র এবং চাঙ্কি কন্যার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট (WhatsApp Chat)। আর সেই হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটে পরিস্কার আরিয়ান অনন্যার মধ্যে মাদক নিয়ে বহুবার কথোপকথন হয়েছে৷ এই চ্যাটেই জানা যাচ্ছে, অচিত কুমার নামের কোনো এক ব্যক্তির থেকে ৮০ হাজার টাকার গাঁজা অর্ডার করেছেন তিনি।

এনসিবি সূত্রে খবর, ২০১৯ সালের জুলাই মাসে আরিয়ান অনন্যা দীর্ঘ সময় গাঁজা নিয়ে আলোচনা চালান। গোপন চ্যাটে অনন্যার কাছে মাদক চাইতেও দেখা যায় আরিয়ানকে। যেখানেই অনন্যা জানান, তিনি গাঁজার ব্যবসা শুরু করেছেন। চাহিদা প্রচুর, জোগাড় করার চেষ্টা করবেন। এরপর অনন্যার কাছে কোকেনও চান আরিয়ান।।

হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট ঘেঁটে জানা গেছে সেদিন মুম্বইয়ের ক্রুজ পার্টিতে যোগ দেওয়ার আগে আরিয়ান বলিউড অভিনেত্রী অনন্যা পান্ডের সঙ্গে মাদক সংক্রান্ত বিষয়ে কথা বলেছেন। ওই হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের ভিত্তিতেই এনসিবি-র দাবি, অনন্যা আরিয়ানকে গাঁজার জোগান দিতেন। কিন্তু অনন্যা সে কথা অস্বীকার করেছেন।

তবে দ্বিতীয়দিন অর্থাৎ শুক্রবার বেশ কিছু কথা সম্ভবত মুখ ফস্কে বলে ফেলেছেন অনন্যা। সূত্রের খবর ওইদিন এনসিবির জেরার মুখে অনন্যা জানিয়েছিলেন তিনি নাকি আন্দাজ করতে পারছেন কে শাহরুখ-পুত্রকে মাদক সরবরাহ করতেন। পাশাপাশি তিনি এও জানান ইতিমধ্যেই সেই ব্যক্তি দু-এক বার আরিয়ানকে মাদক সরবরাহও করেছেন। এ প্রসঙ্গে অভিনেত্রী শাহরুখ খানের বাড়ির এক পরিচারককে নিশানা করেছেন

গতসপ্তাহে বৃহস্পতিবার এবং শুক্রবার পরপর দুদফায় এনসিবির তদন্তকারী অফিসারদের ম্যারাথন জেরার মুখে পড়েছিলেন অনন্যা। এনসিবি-র আধিকারিকরা জানিয়েছিলেন, অনন্যা তদন্তকারী সংস্থার সঙ্গে সহযোগিতা করছেন। এরপর আজ ফের একবার তাকে হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু আজ এনসিবির দপ্তরে হাজিরা এড়িয়ে যান অনন্যা।

Related Articles

Back to top button