বিনোদনসিনেমা

বলিউডে কেটেছে জীবনের ২৫ বছর! জনপ্রিয় অভিনেতা হয়েও আজও কাজ খুঁজতে হয় আরশাদ ওয়ারসিকে

বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা আরশাদ ওয়ারসি (Arshad Warsi)। সকলে এক ডাকে চেনে তাকে। আজ নিজের পেশাগত জীবনে অভিনেতা হিসাবে সফল তিনি। দেখতে দেখতে গতকালই অভিনয় জীবনের ২৫ বছর (25 Years) পূর্ণ করে ফেলেছেন অভিনেতা। তবে সাফল্য কারও জীবনেই সহজে ধরা দেয় না। ব্যতিক্রম নন আরশাদও।তার জীবনে এমন একটা সময় এমন ছিল যখন অভিনেতার জীবনে ছিল ব্যাপক দারিদ্র্যতা।

তবে অভাব থাকলেও আরশাদের নাচের শখ ছিল প্রবল। চাকরি করতে করতেই তার নাচের প্রতি আগ্রহ জন্মায় তার। একসময় তিনি আকবর সামির নাচের দলে যোগ দেন। পরবর্তীতে পরিচালক মহেশ ভাটের ‘কাশ’ ছবিতে কোরিওগ্রাফি করার সুযোগ পান। এছাড়া তিনি ১৯৯৩ সালে অনিল কাপুর- শ্রীদেবী অভিনীত ‘রূপ কি রানি চোরন কা রাজা’ এর টাইটেল ট্র্যাকও কোরিওগ্রাফ করেছিলেন ।

কোরিওগ্রাফার হিসেবে সাফল্য অর্জন করার পর অভিনেতা ১৯৯৬ সালে ‘তেরে মেরে স্বপ্নে’ (Tere Mere Sapne) ছবিতে অভিনয়ের সুযোগ পান। আর এই ছবিটিই বক্স অফিসে তুমুল হিট হয়। অভিনেতার ভাগ্য বদলাতে শুরু করে৷ এখান থেকেই শুরু হয় অভিনেতার টার্নিং পয়েন্ট। ২০০৩ সালে অভিনেতা মুন্নাভাই এমবিবিএসের সার্কিট চরিত্রে অভিনয় করে তুমুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেন।

উল্লেখ্য আরশাদের প্রথম সিনেমা অমিতাভ বচ্চন কর্পোরেশন দ্বারা প্রযোজিত হয়েছিল। তাই অভিনয় জীবনের ২৫ বছর পূর্ণ করার পর, ‘তেরে মেরে স্বপ্নে’ সিনেমায় অভিনয় করার প্রথম সুযোগ দেওয়ার জন্য বর্ষীয়ান অভিনেত্রী জয়া বচ্চন (Jaya Bachchan) এবং এই সিনেমার পরিচালক জয় অগাস্টিনকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

এই ২৫ বছরে যাঁরা আরশাদের ওপর বিশ্বাস রেখেছেন, ভরসা করেছেন, তাঁদের সকলকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন এদিন টুইটারে একটি পোস্ট করেছেন অভিনেতা। তিনি লিখেছেন ‘আজ আমি আমাদের দুর্দান্ত ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে ২৫ বছর পূর্ণ করেছি। এই জায়গাটি আমাকে প্রতিভাবান মানুষ বন্ধু হিসাবে দিয়েছে। আমি এবিসিএল, মিসেস জয়া বচ্চন, জয় অগাস্টিন, এবং আপামর ভক্ত যারা আমাকে ভালোবাসেন এবং যারা আমাকে সুযোগ দিয়েছেন তাদের কাছে চিরকাল কৃতজ্ঞ থাকব,ধন্যবাদ।’

Related Articles

Back to top button