বিনোদনসিনেমা

মালদ্বীপে ঘুরতে গিয়ে করোনা হয়নি! স্ক্যামের ফাঁদে পড়েছিলেন অঙ্কুশ-ঐন্দ্রিলা

টলিউডের ড্যাশিং হিরো অঙ্কুশ হাজরা (Ankush Hazra),যেমন অভিনয় তেমনই পার্সোনালিটি। টলিউডের সুন্দরী অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা সেনের (Oindrila Sen) সাথে চুটিয়ে প্রেম করছেন অভিনেতা। অবশ্য এই প্রেম নতুন নয় দীর্ঘ ১০ বছর ধরেই একসাথে আছেন তারা। মাঝে মধ্যেই একত্রে দেখা দেখা যেত টলিউডের এই জুটিকে। ইতিমধ্যেই বিয়ের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দুজনে। ইচ্ছা ছিল এবছরেই বিয়ে করার কিন্তু মহামারীর জেরে সব পন্ড হয়ে গিয়েছে।

তবে বিয়ে ক্যানসেল হলেও ঘুরুঘুরু কিন্তু বাদ পড়েনি। এবছর প্রথমদফার লকডাউন উঠতেই বলিউড থেকে শুরু করে টলিউডের অভিনেতা অভিনেত্রীদের একটাই গন্তব্য ছিল সেটা হল মালদ্বীপ। সমুদ্রের মাঝে ছোট্ট বীচের ধরেই ছুটির অক্সিজেন খুঁজে নিতে ব্যস্ত ছিলেন সেলিব্রিটিরা। সেই দলেই নাম লিখিয়েছিলেন অঙ্কুশ-ঐন্দ্রিলাও। এপ্রিল নাগাদ মালদ্বীপে ঘুরতে গিয়েছিলেন দুজনে।

Ankush Hazra Oindrila Sen অঙ্কুশ ঐন্দ্রিলা

কিন্তু মুশকিল হল মালদ্বীপে গিয়ে করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন ঐন্দ্রিলা। এমনটাই জানা  গিয়েছিল, যে কারণে আরো ১৪ দিন অতিরিক্ত সেখানে থাকতে হয়েছিল। এরপর দেশে ফিরেছেন অঙ্কুশ-ঐন্দ্রিলা। বর্তমানে জি বাংলার জনপ্রিয় ডান্স রিয়্যালিটি শো ‘ডান্স বাংলা ডান্স-এ সঞ্চালকের ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে অঙ্কুশকে। তাছাড়া সোশ্যাল মিডিয়াতেও বেশ সক্রিয় অভিনেতা মাঝে মধ্যেই মজার ছলে নানান পোস্ট করে থাকেন। যা নিমেষের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে পরে।

তবে সম্প্রতি সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অভিনেতা তার সাথে হওয়া  একটি স্ক্যামের ওপর থেকে পর্দা তুলেছেন। অভিনেতা জানান যে মালদ্বীপে আদৌ করোনা হয়েছিল কিনা সে ব্যাপারে সন্দেহ রয়েছে তাঁর। কারণ মালদ্বীপে হেলথ প্রোটেকশন এজেন্সি নামের একটি সরকারি সংস্থাটি তরফে ঐন্দ্রিলার করোনা পরীক্ষা করা হয়েছিল। রিপোর্টে শুধু মাত্র নাম পাসপোর্ট নাম্বার আর পসিটিভ লেখাছিল। না কোনো ভাইরাল ভ্যালু না বাকি কোনো ইনফরমেশন।

Ankush Hazra Oindrila Sen অঙ্কুশ ঐন্দ্রিলা

রিপোর্ট দেখে সন্দেহ হওয়ায় পুনরায় পরীক্ষা করতে বলেও লাভ হয়নি। বরং ১৪দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হয়েছিল। এরপর রিপোর্ট নেগেটিভ চলে আসে। গোটাব্যাপারটা সন্দেহ জনক হওয়ায় দেশে ফিরে ডাক্তার দেখিয়ে করোনা অ্যান্টিবডি পরীক্ষা করালে দেখা যায় যে কোনো অ্যান্টিবডিই তৈরী হয়নি। যেখানে করোনা আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হলে দেহে অ্যান্টিবডি তৈরী হবার কথা। এরপর ডাক্তার তাকে জানান স্ক্যামের ফাটে পড়েছিলেন অভিনেতা। করোনা হয়নি তাদের, এব্যাপারে তিনি প্রায় ১০০ শতাংশ নিশ্চিত।

Related Articles

Back to top button