বিনোদন

বিয়ের পর স্ত্রীর সাথে একই সাথে বন্দি! আর ভালো লাগছে না বাংলার ক্রাশ অনির্বাণের, জানালেন নিজেই

টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা অনির্বাণ ভট্টাচার্য (Anirban Bhattacharya)। বাংলা চলচিত্রে ব্যোমকেশ চরিত্রে অভিনয় করে বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছেন অভিনেতা। অভিনেতা গতবছরই হাজারো মেয়েদের মন ভেঙে বিয়ে করেছেন। ২০১৯ এর ২৬শে নভেম্বর গাঁটছড়া বেঁধেছেন টলিউডের (Tollywood) হার্টথ্রব অনির্বাণ ভট্টাচার্য (anirban bhattacharya)। দীর্ঘদিনের বান্ধবী মধুরিমা গোস্বামীকে (madhurima goswami) বিয়ে করেন তিনি।

বিয়েতে না ছিল আড়ম্বর, না ছবির ঘনঘটা, না ডিজাইনার পোশাক আর ডেকোরেশনের রমরমা। কাছের মানুষদের নিয়ে মালাবদল আর সিঁদুরদানেই সম্পন্ন হয়েছিল ‘খোকা’র বিয়ে। সেলেব্রিটি হয়েও একেবারে সাধাসিধে বিয়ে নজর করেছিল নেটিজেনদের। তাছাড়া বিপুল সংখ্যক ফ্যানবেস তো রয়েছেই। সেই কারণে বিয়ের পরেও বেশি কিছু দিন চর্চায় ছিলেন অনির্বাণ ও মধুরিমা। তবে এবার আবার নতুন করে চর্চায় উঠে এসেছেন অনির্বাণ।

অনির্বাণ ভট্টাচার্য Anirban Bhattacharya

না, নতুন কোনো ছবির কারণে নয়। বরং অনির্বানের করা মন্তব্যের কারণেই চর্চা শুরু হয়েছে টলিপাড়ায়। কিন্তু কি এমন বলেছেন অভিনেতা ? এর উত্তর হল স্ত্রীর সাথে একই বাড়িতে থাকতে আর ভালো লাগছে না তাঁর। তবে আসল ব্যাপারটা কিন্তু খুবই সোজা কথা। আর অভিনেতা যেটা বলেছেন সেটা আমার আপনার সবার ক্ষেত্রেই প্রায় একই রকম।

Anirban Bhattacharya Madhurima Goswami

আসলে দীর্ঘদিন ধরে চলতে থাকা লকডাউনের কারণে বাড়িতেই বন্দি হয়ে পড়েছেন অভিনেতা। সেই কারণেই একঘেয়ে হয়ে গিয়েছি বাড়িতে থাকা। তাই আর বাড়িতে ভালো লাগছে না তাঁর। তবে এখন কিন্তু আর এক নেই অভিনেতা গতবছরই দোকা হয়ে গিয়েছেন তিনি। তাই বিয়ের পর জীবন পাল্টাবে সেটাই স্বাভাবিক।

এই প্রসঙ্গে অভিনেতাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, জীবন আগের থেকে বদলে গিয়েছে এটা ঠিক। অনেক কিছুই পরিবর্তন হয়েছে। তবে শুটিংয়ের চাপ নেই, বাড়িতেই সারাদিন বসে থাকা আর ভালো লাগছে না। স্ত্রী মধুমিতাকে নিয়ে ঘুরতে যেতে চান অনির্বাণ। তাছাড়া আমাদের অবস্থায় প্রায় একই রখম হয়ে গিয়েছে ঘরবন্দি দশা থেকে মুক্তি পেয়ে কোথাও একটি ঘুরতে গেলে যেন শান্তি মেলে!

Related Articles

Back to top button