গসিপবিনোদন

ভালোবেসে নয় ‘বাধ্য’ হয়েই জয়াকে বিয়ে করেছিলেন অমিতাভ বচ্চন, ৫০ বছরের দাম্পত্যের পর ফাঁস রহস্য

বলিউডের (Bollywood) ‘পাওয়ার কাপল’দের মধ্যে অন্যতম হিসেবে গণ্য করা হয় মেগাস্টার অমিতাভ বচ্চন (Amitabh Bachchan) এবং তাঁর ঘরণী জয়া বচ্চনকে (Jaya Bachchan)। বি টাউনে যেখানে সম্পর্কের ভাঙা-গড়া লেগেই থাকে, সেখানে জয়া এবং অমিতাভের সম্পর্ক সত্যিই একটি আদর্শ নিদর্শন। অনেক ঝড়ঝাপ্টা পেরিয়েও একসঙ্গে আছেন দু’জনে। তবে সম্প্রতি ‘বিগ বি’ তাঁদের সম্পর্ক নিয়ে একটি চাঞ্চল্যকর তথ্য জনসমক্ষে ফাঁস করেছেন।

এতদিন পর্যন্ত বচ্চন দম্পতির অনুরাগীরা ভাবতেন ভালোবেসে বঙ্গ তনয়া জয়া ভাদুড়ির সঙ্গে সাত পাক ঘুরেছেন অমিতাভ। কিন্তু এত বছর পর সুপারস্টার জানালেন তিনি ভালোবেসে বিয়ে করেননি তাঁর স্ত্রীকে। বরং জয়ার শরীরের একটি জিনিস খুব ভালো লেগে গিয়েছিল তাঁর। সেই কারণেই তাঁর সঙ্গে সাত পাক ঘোরার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বি টাউনের ‘শেহেনশাহ’।

Amitabh Bachchan Jaya Bachchan marriage

সম্প্রতি জনপ্রিয় রিয়্যালিটি শো ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’র সেটে নিজের বিয়ে নিয়ে এই চাঞ্চল্যকর তথ্য ফাঁস করেছেন অমিতাভ। ক্যুইজ বেসড এই শোয়ের সাম্প্রতিক পর্বে প্রতিযোগী হিসেবে গিয়েছিলেন ২৯ বছর বয়সী রাজস্থানের বিউটিশিয়ান প্রিয়াঙ্কা মহর্ষি। তাঁর সঙ্গে কথোপকথনের সময়ই জয়াকে বিয়ের আসল কারণ ফাঁস করেন অভিনেতা।

Bollywood superstar Amitabh Bachchan reveals the reason he got married to Jaya Bachchan

অমিতাভ জানান, তাঁর বরবরই মেয়েদের লম্বা চুল ভীষণ পছন্দে। প্রয়াত সঙ্গীতশিল্পী লতা মঙ্গেশকরের পা অবধি চুলের প্রশংসাও করেন তিনি। এরপরই ‘বিগ বি’ বলেন, জয়ার লম্বা চুলের কারণেই তিনি তাঁর প্রতি আকৃষ্ট হয়েছিলেন এবং তাঁকে বিয়ে করেছিলেন।

Amitabh Bachchan and Jaya Bachchan

বলিউড সুপারস্টারের কথায়, ‘আমি কখনও জানতাম না, লতাজি নিজের চুলে কী লাগাতেন কিন্তু ওনার চুল খুব লম্বা এবং সুন্দর ছিল। শুধু তাই নয়, জয়া বচ্চনের লম্বা এবং সুন্দর চুল ওনাকে বিয়ে করার অন্যতম একটি কারণ ছিল’। সংশ্লিষ্ট এপিসোডে বর্ষীয়ান অভিনেতা বলেন, মেয়েদের ছোট করে চুল কাটা তাঁর একেবারেই পছন্দ নয়। চুল যখন নিজে থেকেই বাড়ছে, তখন সেটিকে কাটার কোনও কারণ দেখতে পান না অমিতাভ।

‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’তে ‘বিগ বি’র সঙ্গে কাটানো মুহূর্ত সম্বন্ধে প্রিয়াঙ্কা বলেন, ‘আমি ওনার সঙ্গে বিউটি ট্রিটমেন্ট এবং আরও বিভিন্ন জিনিস নিয়ে কথা বলেছি। আমার ট্যাটুর পিছনের মানেও জানাই ওনাকে। সেসব দেখে উনি বেশ খুশি হয়েছিলেন। আমি এই স্মৃতিগুলিকে সব সময় আগলে রাখব’।

Related Articles

Back to top button