খবরবিনোদন

“জিভ কেটে ফেলেও তাঁকে চুপ করানো যায়নি।” হাথরাস গণধর্ষণ কাণ্ডের প্রতিবাদে আলিয়া

গত ১৪ই সেপ্টেম্বরের হাথরাসের দলিত তরুণীর উপর হওয়া নৃশংস অত্যাচার আবারো সভ্য সমাজের মুখে চুনকালি দিয়েছে। এবার হাথরাস গণধর্ষণ নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেত্রী আলিয়া ভাট। এই নৃশংস ঘটনার বিরুদ্ধে রীতিমত গর্জে উঠেছেন আলিয়া। আলিয়া বলেছেন ” তারা তোমার জিভ কেটে দিয়েছে তও তোমায় চুপ করাতে পারেনি। এখন তোমার হয়ে কোটি কোটি মানুষ বলছে।”

প্রসঙ্গত, ১৪ই স্পেটেম্বর হাথরাসের এক দলিত যুবতীকে গণধর্ষণ ও অত্যাচার করা হয়। অত্যাচার করার পর তাকে মেরে ফেলার চেষ্টাও করে অপরাধীরা। এরপর আশংকাজনক অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে জানা যায় গণধর্ষণের ফলে ওই যুবতীর জিভ অসার হয়ে যায়। তা সত্ত্বেও অভিযুক্তদের নাম বলতে সমর্থ হয় সে। যদিও তাকে বাঁচানো যায়নি গত মঙ্গলবার দীর্ঘ ১৪ দিনের মৃত্যুর সঙ্গে হেরে যায় সে।

যোগী রাজ্যে গণধর্ষিতা যুবতীর মৃত্যুর খবরে গোটা দেশ গর্জে ওঠে। তীব্র প্রতিবাদ শুরু হয়, এমনকি বলিউডের তারাওকারাও প্রতিবাদে শামিল হন। অক্ষয় কুমার থেকে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া অনেকেই এই জঘন্য অপরাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছেন। প্রিয়াঙ্কা বলেছেন “এভাবে আর কত নির্ভয়াকে দেখতে হবে!আর কত মেয়েদের ওপর এই নৃশংস অত্যাচার চলবে! দেশের আইন কি এই চিৎকার শুনতে পায়না?”

অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত কেও এর প্রতিবাদ করতে দেখা গেছে। তিনি বলেছেন – হাথরাসের অপরাধীরা ক্ষমার অযোগ্য, ওদের প্রকাশ্যে গুলি করে মারা উচিত।সাথে তিনি আরো বলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের ওপর তার আস্থা আছে। তিনি আশা করেন অপরাধীদের শীঘ্রই যথা যথাযথ শাস্তি হবে।

বলিউডের প্রিয়াঙ্কা,কারিনা,কঙ্গনার মত এবার এবিষয়ে মহেশ ভাট কন্যা অভিনেত্রী আলিয়া ভাট সরব হয়েছেন। প্রতিবাদ জানিয়ে আলিয়া একটি পোস্ট করেছেন তার সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডলে।

Related Articles

Back to top button