গসিপবিনোদন

দর্শকদের কোনও দোষ নেই, সব দোষ আমাদের! একাধিক ছবি ফ্লপ হতেই নিজেকে ব্যর্থ দাবি অক্ষয়ের

চলতি বছরটা বলিউডের (Bollywood) জন্য একেবারেই ভালো যায়নি। একের পর এক সিনেমা মুক্তি পেয়েছে এবং সেগুলি বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়েছে। অবশ্য শুধুমাত্র হিন্দি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিরই নয়, বলিউডের নামী সুপারস্টার অক্ষয় কুমারের (Akshay Kumar) জন্যেও এই বছরটা একেবারে ভালো যায়নি। আক্কির প্রত্যেকটি সিনেমা এই বছর ফ্লপ হয়েছে।

রোহিত শেট্টি পরিচালিত ‘সূর্যবংশী’ অক্ষয়ের কেরিয়ারের শেষ হিট ছবি। এরপর থেকে অভিনেতার প্রত্যেকটি সিনেমা ফ্লপ হয়েছে। ‘বচ্চন পাণ্ডে’ থেকে শুরু করে ‘সম্রাট পৃথ্বীরাজ’, ‘রক্ষা বন্ধন’ হয়ে হালফিলের ‘রাম সেতু’- প্রত্যেকটি সিনেমা বক্স অফিসে ছাপ ফেলতে ব্যর্থ হয়েছে। গোদের ওপর বিষফোঁড়া হিসেবে দেখে দিয়েছে ‘বয়কট বলিউড’ ট্রেন্ড।

Akshay Kumar,Akshay Kumar on Bollywood’s failure,Bollywood,entertainment,অক্ষয় কুমার,বলিউড বিনোদন

বলিউডের এই খারাপ অবস্থায় বহু তারকাই অভিযোগের তীর তুলেছেন দর্শকদের দিকে। অনেকেই বলেছেন, দর্শকরা বাড়ি থেকে বেরিয়ে সিনেমা হলে যাচ্ছেন না বলেই এখন ইন্ডাস্ট্রির এই অবস্থা। যদিও ভিন্ন সুর শোনা গেল অক্ষয়ের গলায়। চলতি বছর মুক্তিপ্রাপ্ত অভিনেতার প্রত্যেকটি সিনেমা ফ্লপ হওয়া সত্ত্বেও সেই দায় দর্শকদের ঘাড়ে নয়, বরং নিজের ঘাড়ে তুলে নিয়েছেন ‘খিলাড়ি’।

বক্স অফিসে বলিউডের ব্যর্থতা প্রসঙ্গে কথা বলার সময় অক্ষয় বলেন, ‘আমার মনে হয় আগে যতখানি চেষ্টা করতাম তার চেয়েও বেশি চেষ্টা করতে হবে। তাঁদের ঘর থেকে বের করতে আরও বেশি চেষ্টা করতে হবে আমাদের’।

Akshay Kumar speaking

‘রাম সেতু’ অভিনেতার সংযোজন, ‘এটা সম্পূর্ণভাবে আমাদের দোষ। আমাদের জানতে হবে ওনারা কী চান এবং সব বিষয়ে ওনাদের (দর্শকদের) দোষ দেওয়া বন্ধ করতে হবে। ওনারা বেরোতে চাইছেন না বলাটা বন্ধ করতে হবে। কিন্তু আমার মনে হয়ে এবার আমাদের ওনাদের মন জয় করতে হবে এবং তাঁদের বাড়ির বাইরে নিয়ে আসতে হবে’।

অক্ষয়ের কাজের দিক থেকে বলা হলে, সম্প্রতি অভিনেতা নিজের আগামী ছবির বিষয় নিয়ে মুখ খুলেছেন। আক্কি জানান, তাঁর পরবর্তী ছবি যৌন শিক্ষার ওপর হতে চলেছে। আগামী বছর এপ্রিল-মে নাগাদ রিলিজ করবে সেই সিনেমা।

Related Articles

Back to top button